স্যামসাংয়ের চেয়ারম্যান লি কুন হির মৃত্যু

দক্ষিণ কোরিয়ার বহুজাতিক প্রতিষ্ঠান স্যামসাং গ্রুপের চেয়ারম্যান লি কুন হি মারা গেছেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৮ বছর। লি তার বাবার একটি ছোট ব্যবসাকে বৈশ্বিক প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানে রূপ দিয়েছিলেন। খবর বিবিসি, এএফপি।

তার নেতৃত্বেই স্যামসাং বিশ্বের বৃহত্তম স্মার্টফোন ও মেমোরি চিপ নির্মাতা হিসেবে বিশ্বের সবচেয়ে বড় প্রযুক্তি হিসেবে জায়গা করে নেয়। ফোর্বস ম্যাগাজিনের তথ্য অনুযায়ী, তিনি দক্ষিণ কোরিয়ার অন্যতম ধনকুবের। তার মোট সম্পদের পরিমান ২১ বিলিয়ন ডলার

স্যামসাংয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যে, স্থানীয় সময় রোববার লির মৃত্যু হয়েছে। এ সময় তার পরিবারের সদস্যরা তার পাশে ছিলেন। তবে কি কারণে তার মৃত্যু হয়েছে সে বিষয়টি এখনও নিশ্চিত নয়।

২০১৪ সালে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার পর দীর্ঘদিন ধরেই শয্যাশায়ী ছিলেন লি। তার শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে খুব একটা জানা যায়নি। এক বিবৃতিতে স্যামসাংয়ের পক্ষ থেকে তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করে শোক প্রকাশ করা হয়েছে।

ওই বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘স্যামসাংয়ের প্রতিটি মানুষ তার স্মৃতি লালন করে যাবে এবং তার সঙ্গে কাজ করার প্রতিটি মুহূর্তই ছিল কর্মীদের জন্য আনন্দময়’

১৯৩৮ সালে লির বাবা লি বিয়ং চুল স্যামসাং গ্রুপ প্রতিষ্ঠা করেন। লি ছিলেন তার বাবা-মায়ের তৃতীয় সন্তান। তিনি ১৯৬৮ সালে পারিবারিক ব্যবসায়ে যোগ দেন। ১৯৮৭ সালে তার বাবার মৃত্যুর পর তিনি স্যামসাংয়ের চেয়ারম্যানের পদে অধিষ্ঠিত হন।

১৯৯৩ সালে কর্মীদের উদ্দেশে তার একটি বক্তব্যের জন্য তিনি বেশ জনপ্রিয়। সে সময় তিনি বলেছিলেন, ‘চলুন আমরা আমাদের স্ত্রী এবং সন্তানদের ছাড়া অন্য সবকিছু বদলে ফেলি।’

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *