February 25, 2024
জাতীয়

সাড়ে চার কোটি আত্মসাৎ: রংপুর মেডিকেলের অধ্যক্ষও আসামি

 

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক

রংপুর মেডিকেল কলেজে যন্ত্রপাতি কেনার নামে চার কোটি ৪৮ লাখ ৮৯ হাজার ৩০০ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে অধ্যক্ষসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন। দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য বৃহস্পতিবার এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, অসৎ উদ্দেশ্যে পরস্পর যোগসাজশে ক্ষমতার অপব্যবহার করে রংপুর মেডিকেল কলেজে ভারী যন্ত্রপাতি ও সরঞ্জামাদির প্রয়োজন না থাকা সত্তে¡ও প্রতারণা ও জালজালিয়াতির আশ্রয় নিয়ে ব্যবহার অনুপযোগী ও নিম্নমানের যন্ত্রপাতি সরবরাহের মাধ্যমে সরকারের চার কোটি আট চলি­শ লক্ষ ঊননব্বই হাজার তিনশত টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগে রংপুর মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. মো. নুর ইসলামসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।

দুদকের রংপুর সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপ-সহকারী পরিচালক ফেরদৌস রহমান বৃহস্পতিবার এ মামলা দায়ের করেন। মামলার অপর আসামিরা হলেন- ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান বেঙ্গল সায়েন্টিফিক এন্ড সার্জিকেল কোম্পানির মালিক মো. জাহের উদ্দিন সরকার, তার বাবা মো. আব্দুস সাত্তার সরকার, ছেলে মো. আহসান হাবিব, আরেক প্রতিষ্ঠান ইউনির্ভাসেল ট্রেড কর্পোরেশনের মালিক মো. আসাদুর রহমান এবং রংপুর মেডিকেল কলেজের কমিউনিটি মেডিসিন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ডা. মো. সারোয়াত হোসেন।

এই সহকারী অধ্যাপকের বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি একাই বাজার দর কমিটি, দরপত্র উম্মুক্তকরণ কমিটি, দরপত্র মূল্যায়ন কমিটি ও সার্ভে কমিটির সদস্য সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

নন-ক্লিনিক্যাল কমিউনিটি মেডিসিন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক হিসেবে এ বিষয়ে তার অভিজ্ঞতা না থাকলেও প্রভাব খাটিয়ে তিনি চারটি কমিটির সদস্য সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি নিজে অ বৈধভাবে লাভবান হয়ে কমিটিসমূহের সদস্য সচিব হিসেবে প্রভাব খাটিয়ে পরস্পর যোগসাজশে বেঙ্গল সায়েন্টিফিক এন্ড সার্জিক্যাল কোং এর স্বত্বাধিকারী মো. জাহের উদ্দিন সরকারকে ৪,৪৮,৮৯,৩০০  টাকা আত্মসাতে সহায়তা করেছেন। গত বছর মার্চ থেকে জুন মাসে এসব যন্ত্রপাতি ও সরঞ্জাম কেনার নামে অর্থ আত্মসাতের ঘটনা ঘটে।

 

 

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *