মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সমুন্নত রাখতে খুলনা প্রেসক্লাব রাজাকারমুক্ত করার আহŸান

 

 

স্বাধীনতা সাংবাদিক ফোরমের সাধারণ সভা

 

 

স্বাধীনতা সাংবাদিক ফোরামের সাধারণ সভায় স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সমুন্নত রাখতে খুলনা প্রেসক্লাবকে রাজাকারমুক্ত করার আহŸান জানানো হয়েছে। সভায় বক্তারা বলেন, স্বাধীনতা বিরোধী পরাজিত শক্তি ফের মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। স্বাধীনতার সপক্ষের লেবাসধারী কেউ কেউ জামাত-শিবির ও রাজাকারদের পৃষ্ঠপোষকতা করছেন। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী সাংবাদিকদের প্রেসক্লাব থেকে বিতাড়িত করতে গভীর ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছেন। ফলে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী বর্তমান সরকারের আমলে রাজাকারদের আস্ফালন কোনভাবেই মেনে নেয়া হবে না। তাই, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধীদের প্রতিহত করতে স্বাধীনতার সপক্ষের সাংবাদিকদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

সাংবাদিকরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, বিএল কলেজ ইসলামী ছাত্র শিবিরের একসময়ের সক্রিয় নেতা ও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে মিথ্যা তথ্য প্রদানকারী ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন মামলার আসামী এক সাংবাদিকের মৌখিক মিথ্যা অভিযোগ আমলে নিয়ে পরিকল্পিতভাবে খুলনা প্রেস ক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মল্লিক সুধাংশুকে খুলনা প্রেসক্লাব থেকে বহিস্কার করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে আমরা জানতে পেরেছি। বক্তারা মল্লিক সুধাংশু’র বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগের বিরুদ্ধে বহিষ্কারের যে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে তা অবিলম্বে প্রত্যাহারের জোর দাবি জানান।

গতকাল মঙ্গলবার সকালে খুলনা প্রেসক্লাবের হুমায়ুন কবীর বালু মিলনায়তনে স্বাধীনতা সাংবাদিক ফোরাম খুলনা আয়োজিত সাধারণ সভায় সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ ও বিভিন্ন গণমাধ্যমে কর্মরত সাংবাদিকরা এসব কথা বলেন।

সভার শুরুতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও ভাষা শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। সভায় বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মবার্ষিকী সাড়ম্বরে উদযাপন ও স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী পালনসহ নানা সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। এছাড়া মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সমুন্নত রাখার পাশাপাশি স্বাধীনতা বিরোধী অপশক্তি এবং সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলার জন্য সাংবাদিকদের সক্রিয় হওয়ার আহŸান জানানো হয়।

স্বাধীনতা সাংবাদিক ফোরাম খুলনার সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মকবুল হোসেন মিন্টুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক এস এম জাহিদ হোসেনের পরিচালনায় উক্ত সাধারণ সভায় বক্তৃতা করেন স্বাধীনতা সাংবাদিক ফোরাম নেতা শেখ আবু হাসান, আহমদ আলী খান, এ কে হিরু, ফারুক আহমেদ, মোঃ সাহেব আলী,  সুবীর কুমার রায়, মোঃ মুন্সি মাহবুব আলম সোহাগ, অমিয় কান্তি পাল, মল্লিক সুধাংশু, মোঃ শাহ আলম, আসাদুজ্জামান রিয়াজ, এস এম ফরিদ রানা, মোঃ হুমায়ুন কবির, মোস্তফা কামাল আহমেদ, নেয়ামুল হোসেন কচি, বাবুল আকতার, মোঃ আঃ হালিম, মহেন্দ্রনাথ সেন, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মালেক, শরিফুল ইসলাম বনি, এসএম মনিরুজ্জামান, শেখ আব্দুল্লাহ প্রমুখ।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দৈনিক পূর্বাঞ্চল সম্পাদক মোহাম্মদ আলী সনি, দৈনিক আজকের তথ্য সম্পাদক এস এম নজরুল ইসলাম, দক্ষিণাঞ্চল প্রতিদিন সম্পাদক এসএম সাহিদ হোসেন, এড. ফরিদ আহমেদ, আনোয়ারুল ইসলাম কাজল, বাপ্পী খান, হাসান আল মামুন, মোঃ জাকির হোসেন, সাইদা আক্তার রিনি, সুনীল দাস, অভিজিৎ পাল, নূর হাসান জনি, তিতাস চক্রবর্তী, রিতা রানী দাস, দেবনাথ রনজিৎ কুমার, জয়নাল ফরাজী, আল মাহমুদ প্রিন্স, বিমল সাহা, মিজানুর রহমান মিজান, আঃ সাত্তার, দেবব্রত রায়, শেখ নূর গণি বাবলু রেজা, মাহমুদ হাসান সোহেল, দিলীপ কুমার বর্মণ, মিলন হোসেন, আমিরুল ইসলাম, পলাশ দত্ত, শেখ ইলিয়াস আহমেদ, শেখ শান্ত ইসলাম, গাজী মনিরুজ্জামান, আমজাদ আলী লিটন, সুদীপ দাস, মেহেদী হাসান পলাশ, মাহফুজুল আলম মুকুল, রাজু সাহা, রাশিদুল আহসান বাবলু, ওবায়দুল হক, তুফান গাইন, আব্দুর রাজ্জাক, হাবিবুর রহমান, জাহিদ হাসান।

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.