ভিআরসি-এনসিআরবি’র যৌথ সংবাদ সম্মেলনে ১০ দফা দাবী উত্থাপন

 

দ: প্রতিবেদক

জলবায়ূ সহিষ্ণু বাংলাদেশ গঠনের লক্ষ্যে স্থানীয় আঞ্চলিক, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অধিপরামর্শ করার উদ্দেশ্যে গঠিত নেটওয়ার্ক ফর ক্লাইমেট রেজিলিয়েন্ট বাংলাদেশ(এনসিআরবি) এবং গ্রাম পর্যায়ে গঠিত ভিলেজ রেজিলিয়েন্স কমিটি (ভিআরসি) যৌথ গ্রামীণ জনগোষ্ঠির ঝুঁকির তথ্য উপাত্ত উপস্থাপন এবং অভিঘাত মোকাবেলায় স্থানীয় দাবী সমূহ উত্থাপন এবং বাস্তবায়নের লক্ষে এক সংবাদ সম্মেলন গতকাল সোমবার বেলা সাড়ে ১১টায় খুলনা প্রেস (শহীদ সাংবাদিক হুমায়ুন কবির মিলনায়তন)-এ অনুষ্ঠিত হয়। এনসিআরবি’র খুলনা জেলা সদস্য সচিব এমএ কাশেম লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বৃহত্তর খুলনা উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটির মহাসচিব শেখ আশরাফ উজ জামান, সম্মিলিত নাগরিক পরিষদের আহবায়ক এ্যাড. কুদরত-ই-খুদা, বেলা’র বিভাগীয় সমন্বয়কারী মাহফুজুর রহমান মুকুল, নাগরিক সমাজের সদস্য সচিব এ্যাড. মো: বাবুল হাওলাদার, নিসচা’র জেলা সভাপতি মো: হাছিবুর রহমান, নাগরিক নেতা আফজাল হোসেন রাজু, মাহবুব আলম বাদশা, এসএম ইকবাল হোসেন বিপ্লব, এ্যাড. মেহেদী ইনছার, এম মোস্তফা কামাল, জিএম মহিউদ্দিন, মো: শাহাদাৎ হোসেন, ইশরাত আরা হীরা, রাকিবউদ্দিন ফারাজী, অধ্যক্ষ সাজেদা ইসলাম, এম সাইফুল ইসলাম, এসএমএ রহিম, কামরুল ইসলাম কাজল, মাহমুদা আক্তার লিজা, জোবায়ারা নওশিন, মো: আবু বক্কর সিদ্দিক, মো: রাজু আহমেদ প্রমুখ।

সংবাদ সম্মেলনে ১০ দফা দাবী উত্থাপন করা হয়। দাবীগুলো হচ্ছে- ভূমিহীনদের জন্য খাস জমির বন্দোবস্ত করতে হবে; বজ্রপাত নিরোধক ব্যবস্থা গ্রহনে আর্থিক এবং কারিগরি সহায়তা প্রদান করতে হবে; স্বাস্থ্যসম্মত পায়খানা প্রদানসহ এর ব্যবহারের উপর সচেতনতামূলক কার্যক্রম আরো জোরদার করতে হবে; সামাজিক সুরক্ষা ভাতা যোগ্য ব্যক্তিদের মাঝে বিতরণ করতে হবে; পুষ্টিহীনতা দূরীকরনে উদ্যান ফসল চাষের প্রতি আগ্রহ সৃষ্টি ও প্রয়োজনীয় উপকরণ/সহায়তা প্রদান করা; নদী ভাঙ্গন রোধে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহন করতে হবে; বৃক্ষ রোপন কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে হবে; লবনসহিষ্ণু ফসল উৎপাদনে সরকারের কৃষি বিভাগের উদ্যোগ গ্রহন করতে হবে; কারিগরী শিক্ষার প্রসার ঘটাতে হবে; পানীয় জলের জন্য ডিপ টিউবওয়েল স্থাপন করতে হবে।

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.