পাঁচতলা থেকে পড়েও বেঁচে গেল দুধের শিশু

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক

পাঁচতলা! সেটা কম উঁচু নয়। এই উঁচু থেকে পড়লে নির্ঘাত মৃত্যু। এটাই বাস্তবতা। কিন্তু কখনো কখনো কোনো ঘটনা বাস্তবতাকেও হার মানায়। যেমনটি ঘটেছে এক শিশুর ক্ষেত্রে। ঘটনা ভারতের মুম্বাইয়ে। এখানে বিএস দেবাশি রোডের ‘গোপী কৃষ্ণ আবাসন’-এর বাসিন্দা অজিত এবং জ্যোতি। তাদের রয়েছে ১৪ মাসের ছেলে অথর্ব। এই শিশুই পাঁচতলা থেকে জানলা দিয়ে নীচে পড়ে যায়। সবাই ভেবেছিল সে আর নেই। কিন্তু দেখা যায় শিশুটি বেঁচে আছে।

ভারতীয় গণমাধ্যমে বলা হয়, বৃহস্পতিবার সকালে পাঁচতলার ফ্ল্যাটে ড্রয়িং র“মে বসে খেলছিল অথর্ব। পৌনে ৯টা নাগাদ ড্রয়িং রুমের দেওয়ালে বসানো ফরাসি ধাঁচের কাচের জানালা খুলে জামা-কাপড় মেলতে যান অজিতের মা। কিন্তু জানলা ঠিক করে বন্ধ করতে ভুলে যান তিনি।

জানালার বাইরের লোহার গ্রিল বসানো না থাকায়, খেলতে খেলতে খোলা কাচের জানালা দিয়ে নীচে পড়ে যায় অথর্ব। চিৎকার শুনে সবাই ছুটে আসেন। দ্রুত পাঁচতলা থেকে নীচে নেমে আসেন শিশুটির মা-বাবা। এসে নিজেদের চোখকেই বিশ্বাস করতে পারছিলেন না তারা।

দেখেন, চোট পেলেও জ্ঞান রয়েছে তাদের ছেলের। মাটিতে শুয়ে কাঁদছে সে। ঠোট ফেটে রক্ত পড়ছে তার। তড়িঘড়ি মুলুন্ডের বেসরকারি একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় অথর্বকে। এই মুহূর্তে আইসিইউতে ভর্তি রয়েছে সে।

চিকিৎসকরা বলছেন, শিশুটির ঠোঁট ফেটে গিয়েছে। এছাড়া শরীরের কিছু জায়গায় আঘাত পেয়েছে। তবে লিভারে আঘাত লাগাতেই পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে তাকে। আঘাত তেমন গুরুতর নয় বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

ভয়ঙ্কর এমন ঘটনায় শিশুটি কিভাবে বেঁচে গেল-সেই প্রশ্নই এখন দেখা দিয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ওই ভবনের পাশে একটি গাছ আছে। উচ্চতা পাঁচতলা ছাড়িয়ে গিয়েছে। গাছটির একটি ডাল আবার পাঁচতলায় শিশু অথর্বদের ফ্ল্যাটের জানলার নীচ পর্যন্ত— পৌঁছে গিয়েছে।

তাই খোলা জানলা দিয়ে সোজা ওই গাছের ডালের উপর এসে পড়ে অথর্ব। তার ভারে ডালটি নুয়ে পড়ে। সেখান থেকে মাটিতে পড়ে যায়। এ কারণে মনে হয় গুরুতর আঘাত পায়নি সে। তবে ভয়ে কান্না করে।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.