তেরখাদায় দিন দিন হারিয়ে যাচ্ছে দেশী প্রজাতির মাছ

 

 

তেরখাদা প্রতিনিধি

তেরখাদা উপজেলার বিল বাসুয়াখালীর বদ্ধ জলমহলের আওতায় কালিয়ার গোপে প্রায় তিন কিলোমিটার খানের খালে মেশিন দিয়ে পানি সেচে লুটে নিচ্ছে দেশী প্রজাতির ডিমওয়ালা মাছ। অবৈধ মৎস্য শিকারীরা বহাল তবিয়তে প্রশাসনের চোখ ফাকি দিয়ে বিভিন্ন খাল থেকে ডিমওয়ালা মা মাছ নিধন করে চলছে।

এ বিষয়ে স্থানীয় জলমহলের সদস্যগণ ১১ পল্লীর সভাপতি মিহির কুমার, সাধারণ সম্পাদক অক্ষয় মন্ডল এর মৌখিক অভিযোগে জানা যায়, মৎস্য লুন্ঠনকারীদের প্রকোপে মৎস্যজীবিরা জাল, পাটা নিয়ে ঘরে বসে আছে। এবং বহাল তবিয়তে প্রভাবশালীদের ছত্রসহায় কিছু অবৈধ মৎস্য শিকারীরা প্রতিনিয়ত মেশিন দিয়ে পানি সেচে বিভিন্ন প্রজাতির দেশী মৎস্য নিধন করে চলছে। যার কারণে বর্তমানে দেশী প্রজাতির মৎস্য চিরতরে হারিয়ে যেতে বসছে। দেশী মৎস্যের অভাবে গুটিকয়েক দেশী মাছ বাজারে দেখা গেলেও চড়া দামের কারণে সাধারণ মানুষ তা ক্রয় করতে পারছে না।

এ বিষয়ে উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা প্রদীপ কুমার ধামের নিকট জানতে চাইলে তিনি জানান, পানি সেচে মৎস্য নিধন করা আইনগতভাবে অপরাধ। এসকল বেআইনী কাজে যারা নিয়োজিত আছে, অবশ্যই তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ সংবাদে তিনি নিজেই আজগড়ার খানের খালে গিয়ে অবৈধ মৎস্য নিধনকারীদের বাধ ভাঙ্গাসহ জাল পাঠা নষ্ট করেন।বং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ লিটন আলীর নির্দেশে আজগড়া পুলিশ ক্যাম্প ইনচার্জ এসআই অসীম কুমার দাস তাৎক্ষনিক ব্যবস্থা নিলে অবৈধ মৎস্যনিধনকারীরা পানি সেচা মেশিন নিয়ে পালিয়ে যান।

এ বিষয়ে এলাকার মৎস্যজীবিরা জানান, এভাবে প্রতিনিয়ত দেশী প্রজাতির মৎস্য নিধন হলে দেশী মাছের অভাব দেখা দিবে। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সর্বদা নজরদারি কামনা করেছেন সচেতন এলাকাবাসী।

 

 

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.