তাইওয়ান ঘিরে চীনের মহড়ায় যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দাগিরির সুযোগ পেয়েছেন

তাইওয়ানে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসির সফর কেন্দ্র করে চীন সম্প্রতি ব্যাপক সামরিক মহড়া চালায়। বিশ্লেষকরা বলছেন, যুক্তরাষ্ট্র ও মিত্ররা চীনের মহড়ায় গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহের সুযোগ পেয়েছেন।

কূটনীতিক ও নিরাপত্তা বিশ্লেষকদের বক্তব্য–তাইওয়ানে হামলার বিকল্প কিংবা দখলের আগে চীন সম্ভাব্য কোন দ্বীপটি অবরোধ করতে পারে, চীনের সাম্প্রতিক মহড়ায় তার ইঙ্গিত পাওয়া গেছে।সংবাদ সংস্থা রয়টার্সকে যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনীর দুই কর্মকর্তা বলেন, চীনের সামরিক মহড়া থেকে প্রয়োজনীয় তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে। তবে ওই মহড়া থেকে গভীরতর গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহের সুযোগ নেই। চীন মহড়া পর্যবেক্ষণের তথ্য জানে মন্তব্য করে তিনি বলেন, এ কারণে মহড়ায় সর্বোত্তম কৌশল ও কর্মপরিকল্পনা প্রদর্শনের কথা নয়।

ওই দুই কর্মকর্তার বক্তব্য, চীন যেসব ব্যবস্থা ও ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করেছে, তার প্রায় সবই যুক্তরাষ্ট্র ও মিত্রদের কাছে কার্যত পরিচিত। এ কারণে গত কয়েক সপ্তাহে চীনের সামর্থ্য নিয়ে কতটা বাড়তি তথ্য পাওয়া গেছে, তা নিশ্চিত নয়।

এ বিষয়ে সিঙ্গাপুরভিত্তিক নিরাপত্তা বিশ্লেষক কলিন কোহ রয়টার্সকে বলেন, অস্ত্রের পরিবর্তে চীনের এই মহড়ায় গুরুত্বপূর্ণ সামরিক অনুষঙ্গগুলো (সংস্কারকৃত ইস্টার্ন থিয়েটার কমান্ড, রকেট বাহিনী ও কৌশলগত সহায়তা বাহিনী) পর্যবেক্ষণের বড় সুযোগ করে দিয়েছে। চীনের মহড়া থেকে সংকেত, যোগাযোগ ও ইলেকট্রনিক গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহ করবে যুক্তরাষ্ট্র। এত বড় সুযোগ হাতছাড়া করার মতো নয়।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.