আর্জেন্টিনা নয়, ফ্রান্সকে চ্যাম্পিয়ন দেখতে চেয়েছিলেন তেভেজ

আর্জেন্টিনার জার্সিতে একটা সময় ফুটবল মাঠ দাপিয়ে বেড়িয়েছেন কার্লোস তেভেজ। দীর্ঘদিন খেলছেন লিওনেল মেসির সঙ্গে। তবে মেসির সঙ্গে পুরনো সেই শত্রুতার ক্ষত এখনও সেরে ওঠেনি তার। এবার তাই আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ জয়ের পর এক বিস্ফোরক মন্তব্য করে নতুন বিতর্কের জন্ম দিলেন তেভেজ।

আর্জেন্টাইন এক গণমাধ্যমে তেভেজ জানিয়েছেন, ফাইনালে ফ্রান্সকে চ্যাম্পিয়ন দেখতে চেয়েছিলেন তিনি। তিনি আরও বলেন, ‘বিশ্বকাপে খুব একটা নজর দিতে পারিনি। তবে ফরাসিদের খেলা ফলো করছিলাম। কারণ ফ্রান্স আমার পছন্দের দল ছিল।’

তবে কাতারের বিশ্বকাপ ফাইনালে তেভেজের পছন্দের দল ফ্রান্স টাইব্রেকারে হেরে যায় মেসির আর্জেন্টিনার কাছে। অবশ্য দীর্ঘ ৩৬ বছর পর শিরোপা জিতলেও সতীর্থ মেসিকে নিয়ে কিছুই বলেননি তেভেজ। এই প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমার ছেলেরা দেশের হয়ে বিশ্বকাপ এনেছে, দেখে ভালোই লাগছে। তবে আমি মেসিকে এখনও টেক্সট করিনি। কারণ বিশ্বকাপের পর ওর ফোন হয়ত ভয়ানক ব্যস্ত।’

২০০৬ সালের জার্মানি বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার হয়ে তেভেজ ও মেসি দুজনেরই বিশ্বকাপ অভিষেক ঘটেছিল। তবে এই দুই ফুটবলারের তিক্ত সর্ম্পকের কথা সবারই জানা। ২০১০ দক্ষিণ আফ্রিকা ফুটবল বিশ্বকাপেও দুজনে খেলছেন জাতীয় দলের জার্সিতে। তবে ২০১৪ বিশ্বকাপে দল থেকে বাদ পড়েন তেভেজ। তখনই মেসির বিরুদ্ধে নানা অভিযোগের গুঞ্জন উঠে। বলা হয়, জাতীয় দল নির্বাচনে লা পুলগা অনিয়মের আশ্রয় নিচ্ছেন।

তবে এখন পর্যন্ত আলবিসেলেস্তাদের এই দুই তারকা ফুটবলার প্রকাশ্যে নিজেদের সম্পর্কের কথা স্বীকার করেননি। এই প্রসঙ্গে সংবাদমাধ্যম ক্লারিন-এ তেভেজ একবার বলেছিলেন, ‘কোনও সম্পর্কের ব্যবধান না থাকা সত্ত্বেও গণমাধ্যমগুলো এটা তৈরি করেছে। কারণ মেসি তেভেজের বন্ধু, এমন খবর বেশি বিক্রি হবে না। তাই তেভেজ বনাম মেসি শিরোনাম বানানো হচ্ছে। মিডিয়ার এমন কর্মকান্ড জাতীয় দলকেই ক্ষতিগ্রস্ত করছে।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *