আশাশুনিতে অন্তঃসত্ত্বা নারীর উপর প্রতিপক্ষের হামলা : সন্তানের মৃত্যু

আশাশুনি (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি
আশাশুনি উপজেলার খাজরায় মুক্তিযোদ্ধার বাড়ি ও বাজারের ৭/৮টি দোকান ভাংচুর ও হামলায় আহত অন্তঃসত্ত্বা মহিলার পেটের সন্তান মারা গেছে। বুধবার সন্ধ্যায় পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে দু’জনের মধ্যে বাক-বিতন্ডার জের ধরে আছাদুল, তার ভাই সিরাজুল শেখ, শিমুল, শাকিব, রাকিব মোস্তাকিম, মনু গফফার, শাহিনুর, আনারুলসহ তাদের সহযোগিরা মুক্তিযোদ্ধা এ কে এম সামছুল হুদার বাড়িতে হামলা চালিয়ে বাড়ী ভাংচুর এবং নাজমুলের ছোট ভাই পুলিশ সদস্য মহয়মিনুলের স্ত্রী অন্তঃসত্ত্বা ফারিহাসহ ৫/৭ জনকে আহত করে।
পরে তুয়ারডাঙ্গা বাজারের আইনুল, মাছুম, নবাব সানা, নার্গিস, মাছুদুর রহমান পলাশ, মনুজ্জামান, ফজলে করিমসহ কয়েকটি মুদি, ফার্মেসী ও অন্য দোকানে ভাংচুর চালায়। গুরুতর আহত ফারিহা আহমেদকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতাল ভর্তি করা হয়। সারারাত্র অসহ্য যন্ত্রনা ভোগের পর পরদিন (শুক্রবার) ভোর সাড়ে ৫ টার দিকে তার পেটের মধ্যে সন্তান মারা যায়। সাথে সাথে তাকে খুলনায় একটি হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। পুলিশ সদস্য মহয়মিনুলের বোন শিউলী আক্তার বাদী হয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।
তুয়ারডাঙ্গা বাজার কমিটির সাধারণ সম্পাদক ও ইউনিয়ন শ্রমিকলীগের সভাপতি সাইফুল ইসলাম ও মুক্তিযোদ্ধার পুত্র পুলিশ সদস্য মহয়মিনুল ইসলাম জানান, ন্যাক্কারজনক ও ধীকৃত ঘটনার জন্য গ্রামবাসী আক্রমনকারীদের ব্যাপারে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাসহ উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ ও গ্রেফতারপূর্বক অপরাধীদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নিতে জোর দাবী জানিয়েছে।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *