৯৬ ঘণ্টা ধর্মঘটসহ অবরোধের ঘোষণা পাটকল শ্রমিকদের

 

* ঢাকায় বৈঠকের পর নতুন কর্মসূচি ঘোষণা

 

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক

বকেয়া মজুরি পরিশোধ ও মজুরি কমিশন বাস্তবায়নসহ ৯ দফা দাবি আদায় না হওয়ায় আবারও নতুন কর্মসূচি ঘোষণা করেছে পাটকল শ্রমিকরা। আগামী ১২ থেকে ২৯ এপ্রিল পর্যন্ত ঘোষিত এসব কর্মসূচির মধ্যে জনসভা, মিছিল, সড়ক ও রেলপথ অবরোধ ও ধর্মঘট রয়েছে। নতুন এই কর্মসূচির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন প্লাটিনাম জুট মিলের সিবিএ সভাপতি শাহানা শারমিন।

তিনি জানান, নতুন কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে- ১২ এপ্রিল ঢাকা চট্টগ্রাম খুলনাসহ প্রত্যেক অঞ্চলে শ্রমিক জনসভা, এরপর ১৪ এপ্রিল রাজপথে মিছিল। মিছিলগুলো প্রতিটা মিল গেট থেকে শুরু হবে, যার যার এলাকা প্রদক্ষিণ করে মিছিল আবার মিলে এসে শেষ হবে। এরপর ১৫-১৮ এপ্রিল ৯৬ ঘণ্টার ধর্মঘটসহ প্রতিদিন ৪ ঘণ্টা সড়ক ও রেলপথ অবরোধ। এই সময়ের মধ্যে দাবির বিষয়ে যদি কোনও সুরাহা না হয় তাহলে ২৫ এপ্রিল সকাল ১০টায় যার যার মিলে গেট মিটিং করে ২৭-২৯ এপ্রিল আবারও ৭২ ঘণ্টার ধর্মঘটসহ প্রতিদিন সকাল ৭টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত ৬ ঘণ্টা করে সড়ক ও রেলপথ অবরোধ করা হবে।

৯ দফা দাবিতে ৭২ ঘণ্টার কর্মসূচি শেষে গত শনিবার বিজেএমসির প্রধান কার্যালয়ে দু’দফা বৈঠক করেন শ্রমিক নেতারা। বিজেএমসির ঐ সভায় শ্রমিক নেতাদের কোন কথা গুরুত্ব দেয়া হয়নি বলে শ্রমিক নেতারা জানান। মজুরী কমিশন জুন ও জুলাই মাসে বাস্তবায়িত হবে বিজেএমসির চেয়ারম্যান এমন কথা বললেও বকেয়া মজুরীসহ ৯ দফার বিষয়ে কর্নপাত করেনি বিজেএমসির চেয়ারম্যান।

শ্রমিক নেতারা মজুরী কমিশন জুন ও জুলাই মাসে বাস্তবায়নের কথা মেনে নিলেও বকেয়া মজুরী পরিশোধের দাবি জানান। বাংলাদেশ পাটকল শ্রমিকলীগের সভাপতি সরদার মোতাহার উদ্দিন, কারুজ্জামান চুন্নু, মুরাদ হোসেন, সোহরাব হোসেনসহ অন্যান্য নেতারা বকেয়া মজুরী পরিশোধ করার জন্য দাবি ও অনুরোধ জানান কিন্তু বরফ গলেনি। এক পর্যায়ে শ্রমিক নেতারা কিছুটা ক্ষুব্ধ হয়ে বিজেএমসি’র সভা কক্ষ থেকে বের হয়ে আসেন। পরে গতকাল রবিবার এসব কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।

এদিকে পাটকল শ্রমিক লীগের বৈঠকের কথা খোলাখুলি না বললেও প্রথম দফায় ৯৬ ঘন্টা ধর্মঘটসহ রাজপথ, রেলপথ অবরোধ কর্মসুচি দু’ তিনদিন বিরতি দিয়ে আবারো ৭২ ঘন্টা ধর্মঘট ও অবরোধ কর্মসূচি পালন করবে শ্রমিকরা। এ সিদ্ধান্ত সকল শ্রমিক নেতারা একমত হয়েছেন, আগামী শুক্রবার শ্রমিক জনসভায় এ আন্দোলন কর্মসূচির আনুষ্ঠানিক ঘোষণা করা হবে এর মধ্যে বিজেএমসি থেকে যদি কোন ঘোষণা দেয়া হয় তাহলে কর্মসূচি শিথিল করা হবেও বলে জানানো হয়েছে।

 

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *