হবিগঞ্জে হত্যার দায়ে ৬ জনের যাবজ্জীবন

 

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক

হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জ উপজেলায় এক কৃষককে হত্যার দায়ে ছয়জনকে যাবজ্জীবন দিয়েছে আদালত। হবিগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক এসএম নাছিম রেজা গতকাল সোমবার এ রায় ঘোষণা করেন। এছাড়া সাজাপ্রাপ্ত প্রত্যেক আসামিকে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা করেছে আদালত। জরিমানা না দিলে তাদের আরও দুই বছর কারাগারে থাকতে হবে।

সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- উপজেলার জলসুখা শংকমোহন গ্রামের সফর আলীর ছেলে মোশাহিদ মিয়া, সামছুল হকের ছেলে মোহন মিয়া, বাগহাটি গ্রামের আলম মৌলার ছেলে জিয়াউর রহমান, আটপাড়া গ্রামের রহমান উল­াহর ছেলে ওয়াহাব উল­া, মধ্যপাড়া গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে চান মিয়া ও মির্কা গ্রামের বিনন মিয়ার ছেলৈ দিলু মিয়া।

রায় ঘোষণার সময় মোশাহিদ ও জিয়াউর রহমান আদালতে উপস্থিত ছিলেন। অন্য চার আসামি পলাতক রয়েছেন। অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় এ মামলায় আরও ১৪ আসামিকে বেকসুর খালাস দিয়েছে আদালত। ২০০৫ সালের ৩০ অক্টোবর জলসুখা শংকরমোহন গ্রামের তোতন মিয়া হত্যা মামলায় আদালতের এই রায় আসে। তোতন ওই গ্রামের আব্দুল মজিদের ছেলে।

হবিগঞ্জের জজ আদালতের পরিদর্শক আল আমিন হোসেন মামলার নথির বরাতে জানান, তোতন তাদের গ্রামের পাশে মোশাহিদ মিয়ার জলমহালে কাজ করতেন। সম্পত্তির বিরোধের জেরে ২০০৫ সালের ৩০ অক্টোবর সন্ধ্যায় তোতনকে জলমহালের পাশে গলা কেটে হত্যা করা হয়।

এ ঘটনায় তোতনের স্ত্রী আনোয়ারা আক্তার ২০ জনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন। তদন্ত শেষে আজমিরীগঞ্জ থানার তৎকালীন ওসি শ্যামল কান্তি বড়ুয়া পরের বছরই সব আসামির বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেন।

পরিদর্শক আমিন বলেন, মামলার ২৬ সাক্ষীর মধ্যে ১৫ জনের সাক্ষ্য নিয়ে আদালত এ রায় দিয়েছে। রায়ে ছয়জনকে যাবজ্জীবন ও অন্যদের বেকসুর খালাস দিয়েছে আদালত। রায়ে বাদীপক্ষের লোকজন খুশি হয়েছে বলে জানিয়েছেন বাদীপক্ষের আইনজীবী আব্দুল আহাদ ফারুক।

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.