স্বনামধন্য পত্রিকার নাম ব্যবহার করে নওয়াপাড়ায় চাঁদাবাজির অভিযোগ

নওয়াপাড়ায় ব্যবসায়ীর সংবাদ সম্মেলন

অভয়নগর (যশোর) প্রতিনিধি
অভয়নগরে দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকার প্রতিনিধি ও সাপ্তাহিক জীবন স্রোত পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক পরিচয়দানকারী কথিত সাংবাদিক কাম হোমিও চিকিৎসক মো. বদরুজ্জামানের বিরুদ্ধে ফের সংবাদ সম্মেলন হয়েছে। শনিবার সকালে কথিত সাংবাদিক বদরুজ্জামানের চাঁদাবাজি, ভয়ভীতি ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে নওয়াপাড়া প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন নওয়াপাড়া বাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মো. ফারুক হোসেন।
তিনি তাঁর লিখিত বক্তব্যে বলেন, দীর্ঘদিন ধরে আমি সুনামের সাথে নওয়াপাড়া বাজারে ব্যবসা করছি। ২০১৯ সালে ১৪ নভেম্বর বদরুজ্জামান নিজেকে দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকার অভয়নগর প্রতিনিধি দাবি করে আমাকে জমি কিনে দেয়ার কথা বলে ৩ লাখ ৯০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়। জমি কিনে না দিয়ে প্রতারণা শুরু করে। জমি কেনার টাকা ফেরত চাইলে শুরু করেন ছলচাতুরী। সাংবাদিক হিসেবে বিভিন্ন ধরণের ভয়ভীতিও দেখান। পরবর্তীতে আমি নওয়াপাড়া প্রেসক্লাবের মধ্যস্ততায় দুই লাখ টাকা ফেরত পাই। বাকি টাকা চাইলে বদরুজ্জামান আমার বিরুদ্ধে যশোর জেলা বিজ্ঞ আদালতে চাঁদাবাজীর একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করে। বিষয়টি পিবিআই (পুলিশ ব্যুরো ইনভেস্টিগেশন) তদন্ত করে। পিবিআই এর তদন্ত রিপোর্টে ঘটনা মিথ্যা প্রমাণিত হয়।
লিখিত বক্তব্যে তিনি আরও বলেন, এরপর বদরুজ্জামান বেপরোয়া হয়ে আমার বিরুদ্ধে যশোর থেকে প্রকাশিত সাপ্তাহিক জীবস্রোত পত্রিকায় ‘কুলি থেকে কোটিপতি’ ‘রাস্তার জমি দখল করে ঘাট-গুদাম নির্মাণ’ ও চাঁদাবাজী মামলাকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করা’ শিরোনামে একই দিনে তিনটি মিথ্যা ও বানোয়াট সংবাদ প্রকাশ করে। ওই সংবাদগুলোতে যেসব সাংবাদিকের নাম ব্যবহার করা হয়েছে তারা পত্রিকার সাথে জড়িত নয় মর্মে গত ৯ অক্টোবর শুক্রবার নওয়াপাড়া প্রেসক্লাবে তারা সংবাদ সম্মেলন করে। সংবাদ সম্মেলনে তারা নিজেদের ওই পত্রিকার (জীবনস্রোতের) সাথে জড়িত নয় বলে দাবি করে। সম্প্রতি আমার কাছে দেশের স্বনামধন্য পত্রিকা দৈনিক ইত্তেফাক অভয়নগর প্রতিনিধি পরিচয়ে প্রতারক বদরুজ্জামান দুই লাখ ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে। এছাড়া প্রতিমাসে ৪০ হাজার টাকা করে মাশোহারা না দিলে আমার বিরুদ্ধে সংবাদ, মামলা ও আমার ব্যবসা লাঠে উঠাবে বলে হুমকি দিতে থাকে। এঘটনায় আমি বদরুজ্জামানের বিরুদ্ধে যশোর ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে একটি মামলা দায়ের করি। এরই ধারাবাহিকতায় কয়েকদিন পূর্বে একাধিক বিবাহের হোতা, প্রতারক ও চাঁদাবাজ বদরুজ্জামান আমার বিরুদ্ধে মোস্তাক আহম্মেদ নামে এক ব্যক্তিকে দিয়ে মিথ্যা মামলা দায়ের করায়।
বক্তব্যের শেষে তিনি সাংবাদিকদের মাধ্যমে দেশের স্বনামধ্য ও মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে অগ্রণী ভূমিকা পালনকারী দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকার সম্পাদক ও যশোর জেলা প্রতিনিধির নিকট বদরুজ্জামানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ করেন। তিনি দ্রুত সময়ের মধ্যে তদন্তপূর্বক প্রতারক বদরুজ্জামানের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি এবং তার নামে দায়ের করা মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন, মাসুম বিল্লাহ, মোহাম্মদ সেলিম, ফিরোজ মোল্যা, গৌতম অধিকারী প্রমুখ।

দক্ষিণাঞ্চল প্রতিদিন/ এম জে এফ

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *