সোনাডাঙ্গা থানা আ’লীগের সংবর্ধনা

খুলনাকে মাদক-সন্ত্রাসমুক্ত করতে একাট্টা মেয়র-এমপি

দ: প্রতিবেদক

খুলনা নগরী থেকে মাদক ও সন্ত্রাস দূর করতে কঠোর অবস্থানের কথা জানিয়েছেন খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক ও খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য সেখ সালাহউদ্দিন জুয়েল। গতকাল বুধবার নগরীর নিউমার্কেট চত্বরে সোনাডাঙ্গা থানা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে মেয়র, প্রতিমন্ত্রী, উপমন্ত্রী, সংসদ সদস্যের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তৃতাকালে পুনরায় তাদের কঠোর অবস্থানের কথা জানান।

সংবর্ধিত অতিথির বক্তৃতাকালে নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সিটি মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক বলেন, ‘খুলনা শহরে মাদক, সন্ত্রাস, ভূমিদস্যুদের স্থান হবে না। খুলনা থেকে মাদক-সন্ত্রাসসহ সকল অপরাধ নির্মূলে পুলিশের প্রতি কঠোর নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। যদি দলের কোন লোক মাদকে জড়িত হয়, ভূমি দখল করে তাদের বিরুদ্ধেও কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। দলের নাম ভাঙ্গিয়ে কেউ যদি চাঁদাবাজি করেন তাদের জন্যও কঠিন সময় অপেক্ষা করছে বলে হুঁশিয়ারি দেন তিনি।’

সিটি মেয়র আরও বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশক্রমে খুলনাকে ঢেলে সাজানোর কাজ চলছে। নগরবাসীর কাছে নির্বাচনী প্রতিশ্র“তি অনুযায়ী যানজট নিরসনে কাজ করা হচ্ছে। ফুটপাথ দখলমুক্ত করতে কেসিসি ও জেলা প্রশাসন অভিযান চালাচ্ছে। আগামী ৫ বছরের মধ্যে খুলনাকে তিলোত্তমা নগরী হিসেবে গড়ে তোলা হবে। এজন্য সবধরণের কাজে নগরবাসীর সহযোগিতা কামনা করেন নগর পিতা।’

খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য ও বঙ্গবন্ধুর ভ্রাতুষ্পুত্র সেখ সালাহউদ্দিন জুয়েল বলেন, ‘বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার মাদক, সন্ত্রাস, ভূমিদস্যুতায় সমর্থন করে না। এমন কর্মকাণ্ডে যারা জড়িত থাকবে তাদের সকলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এজন্য অচিরেই সবাইকে আলোর পথে ফিরে আসতে হবে বলে তিনি জানান।’

সেখ জুয়েল আরও বলেন, ‘খুলনাকে ঘিরে নতুন নতুন পরিকল্পনা গ্রহণ করা হচ্ছে, যাতে যুবক-যুবতীদের কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হয়। খুলনায় আইটি ভিলেজ, আইটি পার্ক স্থাপন করা হবে, রামপালে বিমানবন্দরের কাজও খুব শিগগিরই আলোর মুখ দেখবে। এছাড়া খুলনা টেক্সটাইল মিলসহ বন্ধ মিল-কারাখানা চালুর বিষয়েও কাজ করা হচ্ছে বলে তিনি জানান।’

সোনাডাঙ্গা থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান বুলু বিশ্বাসের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক তসলিম আহম্মেদ আশার পরিচালনায় প্রধান বক্তার বক্তৃতা করেন নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মিজানুর রহমান মিজান। আরও বক্তৃতা করেন বঙ্গবন্ধুর ভাগ্নে এ কে আব্দুল­াহ, মুক্তিযোদ্ধা অধ্যাপক আলমগীর কবির, কেসিসি’র প্যানেল মেয়র-২ আলী আকবর টিপু, খুলনা সদর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাড. সাইফুল ইসলাম, ১৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শেখ হাফিজুর রহমান, নগর যুবলীগের আহ্বায়ক এ্যাড. সরদার আনিসুর রহমান পপলু, নগর শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক রণজিৎ কুমার ঘোষ, নগর ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও যুবলীগ নেতা সফিকুর রহমান পলাশ, নগর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শেখ ফারুক হাসান হিটলু, বর্তমান সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান রাসেল প্রমুখ।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটির সদস্য চিশতী সোহরাব হোসেন শিকদার, নগর সহ-সভাপতি মলি­ক আবিদ হোসেন কবির, বঙ্গবন্ধুর ভ্রাতুষ্পুত্র শেখ জালাল উদ্দিন রুবেল, আওয়ামী লীগ নেতা আনোয়ার হোসেন, কাজী জাহিদ হোসেন, নগর ছাত্রলীগের সভাপতি শেখ শাহাজালাল হোসেন সুজন প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে নগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সিটি মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক এবং নগর সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মিজানুর রহমানের হাতে ফুলের তোড়া দিয়ে ১৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও সাবেক বিএনপি নেতা শেখ হাফিজুর রহমান হাফিজ তার অনুসারীদের নিয়ে আওয়ামী লীগে যোগদান করেন।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *