সুবর্ণচরে ‘ধর্ষণের’ শিকার সেই নারী বাড়ি ফিরেছেন

 

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে ‘দলবেঁধে ধর্ষণের’ শিকার সেই নারী চিকিৎসা শেষে হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরেছেন। গতকাল সোমবার তিনি হাসপাতাল ছেড়েছেন বলে চিকিৎসক জানিয়েছেন। হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা সৈয়দ মহিউদ্দিন আব্দুল আজিম বলেন, ইতিমধ্যে নির্যাতিতার সকল শারীরিক পরীক্ষা শেষ করে প্রতিবেদন পুলিশ সুপার কার্যালয়ে পাঠানো হয়েছে। তার শারীরিক অবস্থার বেশ উন্নতি হয়েছে। তিনি বর্তমানে শারীরিক ও মানসিকভাবে সুস্থ থাকায় তাকে হাসপাতাল থেকে ছুটি দেওয়া হয়েছে।

এদিকে, সোমবার বিকালে হাসপাতাল ছাড়ার সময় ওই নারীর সঙ্গে জেলা প্রশাসক তন্ময় দাস দেখা করেছেন। এ সময় ওই নারী বাড়ি ফিরে গেলে নিজের ও পরিবারের নিরাপত্তা নিয়ে জেলা প্রশাসকের কাছে শঙ্কা প্রকাশ করলে জেলা প্রশাসক তাদেরকে সকল প্রকার নিরাপত্তার আশ্বাস দেন। প্রয়োজনে বাড়িতে পুলিশ টহলের ব্যবস্থা করা হবে বলেও আশ্বস্ত করেন জেলা প্রশাসক।

গত ৩১ মার্চ সুবর্ণচর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভাইস চেয়ারম্যান পদে ভোটের দ্বন্দ্বের জেরে উত্তর বাগ্যা গ্রামের ছয় সন্তানের জননী ধর্ষণের শিকার হন বলে মামলায় অভিযোগ করা হয়।

অভিযোগ করা হয়, ওইদিন স্বামীর সঙ্গে বাড়ি ফেরার পথে স্থানীয় ইউসুফ মাঝি ও বেচু মাঝির নেতৃত্বে ১০-১২ জন পথ আটকে তাদেরকে মারধর করে। এক পর্যায়ে স্বামীকে আটকে রেখে ওই নারীকে পাশের কলা বাগানে নিয়ে ধর্ষণ করে বেচু মাঝি, ফজলু ও আবুল বাসার। পরদিন তার স্বামী আটজনের নাম উলে­খসহ অজ্ঞাত পরিচয় আরও চার জনকে আসামি করে চরজব্বার থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

 

 

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.