সুবর্ণচরে এবার স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণ, গ্রেফতার ২

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক
নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলায় পূর্ব চরবাটা ইউনিয়নে এবার ষষ্ঠ শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে (১৩) গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গতকাল শনিবার দুপুরে ওই স্কুলছাত্রীকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে মেডিকেল পরীক্ষা করা হয়েছে।
এরআগে, বৃহস্পতিবার রাতে ইউনিয়নের দক্ষিণ চরমজিদ গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। শুক্রবার রাতে ওই স্কুলছাত্রীর বড় ভাই চরজব্বর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এরপর ওই রাতেই অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত দুইজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতাররা হলেন- দক্ষিণ চরমজিদ গ্রামের মৃত তৈয়ব মিয়ার ছেলে ইগ্রাফিল আজাদ স্বপন (২৩) ও একই ইউনিয়নের চাঁন মিয়ার ছেলে নিজাম (২২)।
পুলিশ জানায়, বৃহস্পতিবার দুপুরে ওই স্কুলছাত্রী তার মাকে হাতিয়া যাওয়ার সময় বাড়ি থেকে এগিয়ে দেওয়ার জন্য বুড়ার দোকানের কাছে যায়। পরে সে বাড়ি ফেরার পথে অটোরিকশা চালক স্বপন ভাড়া ছাড়াই বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে গাড়িতে ওঠান। পরে অটোরিকশায় করে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরিয়ে রাত ৯টার দিকে দক্ষিণ চরমজিদ গ্রামের একটি নির্জন স্থানে ওই স্কুলছাত্রীকে নিয়ে আসে। সেখানে নিজাম নামে আরও একজন অপেক্ষা করছিলেন। পরে স্বপন ও নিজাম দুইজন মিলে তাকে গণধর্ষণ করে।
শুক্রবার সকালে ওই স্কুলছাত্রী বাড়িতে এলে তার পরিবারকে ধর্ষণের বিষয়টি জানায়। পরে স্কুলছাত্রীটির বড় ভাই ওইদিন রাতে স্বপন ও নিজামকে আসামি করে চরজব্বর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।
চরজব্বর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) ইব্রাহিম খলিল জানান, ধর্ষণের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। দুপুরে স্কুলছাত্রীকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে মেডিকেলে পরীক্ষা করা হয়েছে। প্রসঙ্গত, গত ৩০ ডিসেম্বর রাতে বিরোধী একটি দলকে ভোট দেওয়ার জেরে সুবর্ণচর উপজেলার চরবাগ্গা গ্রামে চার সন্তানের জননী এক গৃহবধূকে গণধর্ষণের ঘটনা ঘটে। যা দেশ বিদেশে ব্যাপক আলোড়ন তোলে। পরবর্তীতে গত ১১ জানুয়ারি রাতে ঘরের সিঁদ কেটে সুবর্ণচরের পার্শ্ববর্তী কবিরহাট উপজেলায় তিন সন্তানের জননী এক গৃহবধূকেও গণধর্ষণের ঘটনা ঘটে।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.