সুন্দরবনের কোষ্টগার্ডের সাথে বন্দুকযুদ্ধে বনদস্যু নিহত

দাকোপ প্রতিনিধি

সুন্দরবনের পশ্চিম বনবিভাগের দাকোপ অঞ্চলে কোষ্টগার্ডের সাথে গোলাগুলিতে ক্রসফায়ারে পড়ে এক বনদস্যু নিহত হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র গুলি উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় দাকোপ থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের হয়েছে।

কোষ্টগার্ডের বরাতে দাকোপ থানা পুলিশ জানায়, কোষ্টগার্ড পশ্চিম জোনের নলিয়ান কন্টিনজেন্ট সদস্যরা নিয়মিত টহলের অংশ হিসাবে রবিবার দিবাগত রাতে কালাবগী অঞ্চলে টহলে যায়। এ সময় তারা জানতে পারে সুন্দরবনের কালাবগী সোনামুখি খালের দক্ষিন পাড়ের আনুমানিক ১শ’ গজ ভিতরে ১২/১৩ জনের একটি দস্যুদল অবস্থান নিয়ে ডাকাতির প্রস্তুতি নিয়েছে। এমন তথ্যের ভিত্তিতে রাত সাড়ে ১১টার দিকে কোষ্টগার্ড সেখানে অভিযানে যায়। তাদের উপস্থিতি টের পেয়ে বনদস্যুরা কোষ্টগার্ড সদস্যদের লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। এ সময় তারা ও পাল্টা গুলিবর্ষণ করে। এভাবে ১০/১৫ মিনিট গুলি বিনিময়ের পরে দস্যুদল পিছু হটে পালিয়ে যায়। পরে কোস্টগার্ড সদস্যরা ঘটনা স্থলে তল্লাশি চালিয়ে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আনুমানিক ৩৮ বছর বয়সি অজ্ঞাত পরিচয়ের দস্যুবাহিনীর এক সদস্যকে পাওয়া যায়। এছাড়া ঘটনাস্থল থেকে ৪ টি পাইপগান ও ১ রাউন্ড কার্টুজ উদ্ধার হয়। ভোর রাতে আহত দস্যুকে দাকোপ উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত্যু ঘোষণা করে। পরবর্তীতে লাশ দাকোপ থানা পুলিশের কাছে ময়না তদন্তের জন্য হস্তান্তর করা হয়।

এ ঘটনায় অভিযানে নেতৃত্বদানকারী কোষ্টগার্ডের পেটি অফিসার মোঃ মেহেদী হাসান বাদী হয়ে দস্যুতার প্রস্তুতি গ্রহণ ও সরকারী কাজে বাধাদান এবং অস্ত্র উর্দ্ধারের ঘটনায় দাকোপ থানায় পৃথক দুটি মামলা দায়ের করেছে। যা দাকোপ থানার মামলা নং ৪ ও ৫ তাং ১৮/০২/১৯। অপরদিকে স্থানীয়দের ভাষ্যমতে নিহত ব্যক্তি দাকোপ অঞ্চলের না, তবে সে বনদস্যু আছাফুর বাহিনীর সদস্য বলে ধারনা করা হচ্ছে।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.