সুনামগঞ্জে হত্যা মামলায় বাবা-ছেলের যাবজ্জীবন

 

 

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক

সুনামগঞ্জে হত্যা মামলায় এক বাবা ও তার দুই ছেলেকে যাবজ্জীবন দিয়েছে আদালত। সুনামগঞ্জের জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মোহাম্মদ আব্দুল­াহ আল মামুন সোমবার ১৯ বছর আগের এ মামলার রায় ঘোষণা করেন। এছাড়া আদালত প্রত্যেককে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে। জরিমানা না দিলে তাদের আরও দুই মাস সশ্রম কারাভোগ করতে হবে।

সাজাপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন জেলার তাহিরপুর উপজেলার চিকসা গ্রামের জোয়াহের আলীর ছেলে মির্জা হাছন আলী ও তার দুই ছেলে নোমান মিয়া ও কালা মিয়া। রায় ঘোষণার সময় তারা আদালতের কাঠগড়ায় ছিলেন।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী এপিপি সোহেল আহমদ সইল মিয়া মামলার নথির বরাতে বলেন, ২০০০ সালের ২০ আগস্ট চিকসা গ্রামের রণজিৎ পুরকায়স্থের ছেলে রুবেলকে কাজের কথা বলে বাড়ির বাইরে নিয়ে যান প্রতিবেশী মির্জা হাছন আলীর ছেলে নোমান মিয়া।

রাত ২টার দিকে চিৎকার শুনে রণজিৎ ও স্ত্রী উষারানী বাড়ির বাইরে গিয়ে দেখেন, তিন আসামি রুবেলকে মারধর করে পুকুর পারে ফেলে রেখেছেন। তাকে তাহিরপুর স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এর পরদিন হাছন ও তার দুই ছেলে নোমান ও কালা মিয়াসহ সাতজনের বিরুদ্ধে মামলা করেন নিহত রুবেলের বাবা রণজিৎ। তদন্ত শেষে পুলিশ সাতজনের বিরুদ্ধেই আদালতে অভিযোগপত্র দেয়।

আইনজীবী সইল মিয়া বলেন, বিচার শেষে আদালত চারজনকে খালাস দিয়েছে। আর বাবা ও তার দুই ছেলেকে দোষী সাব্যস্ত করে যাবজ্জীবন দিয়েছে।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.