সিরিয়ায় ইরানি সেনা অবস্থানে ইসরায়েলি বিমান হামলা

অনলাইন প্রদিবেদক

আজ সোমবার ভোরে সিরিয়ায় অবস্থিত ইরানের কুর্দি টার্গেট সমূহ ইসরায়েলি বিমান আক্রমণ দ্বারা আক্রান্ত হয়েছে। ইসরায়েলি সশস্ত্র বাহিনীর ভাষ্যমতে, তাদের বিমান বাহিনীর উপর আক্রমণ করার পর পাল্টা আক্রমণ হিসাবে সিরিয়ার ডিফেন্স সিস্টেমে হামলা করেছে তারা। সিরিয়ার একটি আঞ্চলিক সংবাদমাধ্যম মতে, আজকে ইসরাইল কয়েক দফা গাইডেড মিসাইল দ্বারা তাদের উপর আক্রমণ করে। যদিও সিরিয়ান ডিফেন্স সিস্টেম অধিকাংশ আক্রমণকারী বিমান কে ধ্বংস করতে সক্ষম হয়। 

দামাস্কাসে অবস্থিত এক প্রত্যক্ষদর্শীর মতে সোমবার ভোর বেলা কয়েক ঘণ্টার জুড়ে হামলার প্রচন্ড শব্দ পায় তারা। 

ইসরায়েলের সশস্ত্রবাহিনী বলেছে তাদের বোমারু বিমান সিরিয়ায় অবস্থিত কুর্দি ফোর্সের বেশ কয়েকটি ঘাটিতে হামলা করেছে এবং দামাস্কাসের আন্তর্জাতিক এয়ারপোর্ট এর কাছাকাছি কয়েকটি জায়গায় তারা বোমাবর্ষণ করেছে যার ভেতর একটি ইরানি  ইন্টেলিজেন্স ক্যাম্প এবং একটি মিলিটারি ট্রেনিং ক্যাম্প অন্তর্গতগত। 

হামলার সময় কয়েক ডজন সিরিয়ান ভূমি হতে আকাশে নিক্ষেপযোগ্য মিসাইল নিক্ষেপ করা হয়েছিল। এর ব্যাপারে ইসরাইল তাদের সতর্ক করে ফলাফল না পেলে এর প্রতিবাদে সিরিয়ান ডিফেন্সের বেশ কয়েকটি অবস্থান তারা টার্গেট করে হামলা করে। 

বহির্বিশ্বে ইরানি রেভোল্যুশনারি গার্ডস এর দায়িত্বে থাকে ইরানের কুরদিশ ফোর্স। 

এর আগে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু এক বিবৃতিতে বলেছিলেন সিরিয়ায় অবস্থিত ইরানের যে কোন ট্রেঞ্চ হামলা যা আমাদের আঘাতপ্রাপ্ত করতে পারে সেগুলোর সরাসরি জবাব দিতে আমার বদ্ধপরিকর এবং সমুচিত জবাব দেওয়া হবে সাথেসাথেই। 

সে এর আগে ক্যাবিনেট কে বলেছেন গত কয়েক বছরে ইরান এবং তাদের মিত্ররা যেমন লেবাননের হিজবুল্লাহ কে শায়েস্তা করতে তারা সিরিয়ার  যুদ্ধে কয়েকশো হামলা চালিয়েছে ইরানি ফোর্সের উপর । 

এর আগে চুপচাপ থাকলেও এই মাসেই প্রথম ইসরায়েল তাদের উপর থেকে পর্দা সরাতে শুরু করেছে, যেটা তাদের আগের থেকে অনেক বেশি আত্মবিশ্বাস যুগিয়েছে।  রয়টার্স 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.