সাতক্ষীরায় গৃহবধূ হত্যাকান্ডের ঘটনায় থানায় মামলা মামলা

 

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

সাতক্ষীরার গৃহবধূ মুসলিমা খাতুনকে হত্যাকান্ডের ঘটনায় সদর থানায় একটি মামলা হয়েছে। শুক্রবার রাতে নিহতের চাচা শহিদুল ইসলাম বাদী হয়ে চারজনকে আসামি করে সাতক্ষীরা সদর থানায় এ মামলাটি দায়ের করেন। পুলিশ এখনও পর্যন্ত এ ঘটনায় কাউকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হননি। এর আগে বৃহস্পতিবার সকালে সদর উপজেলার শিবনগর গ্রামে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রতিবেশীদের লাঠির আঘাতে প্রান হারান গৃহবধূ মুসলিমা খাতুন (৩২)। তিনি ওই গ্রামের মোসলেমউদ্দিনের স্ত্রী।

মুসলিমার চাচা কলারোয়া থানার বুইতা গ্রামের শহিদুল ইসলাম জানান, গত বৃহস্পতিবার সকালে তার জামাতা মোসলেউদ্দিন বাড়ির পাশে মাছের ঘেরের বেড়িবাঁধে পুঁই শাক তুলতে গেলে ওই গ্রামের আমাল সরদার, আকবর সরদার, ঝন্টু ও মিন্টু তাতে বাধা দেয়। তারা তাকে মারপিট করে। এরপরও  তারা ফের মোসলেমের বাড়িতে লাঠিসোটা, লোহার রড, শাবল নিয়ে হামলা করে তার ওপর। এতে বাধা দেন স্ত্রী মুসলিমা। তাদের আঘাতে মুসলিমা গুরুতর আহত হলে তাকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে পরে তাকে আশংকাজনক অবস্থায় তাকে নিয়ে যাওয়া হয় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। এরপর বৃহস্পতিবার রাতে মুসলিমা মারা যান। খুলনার সোনাডাঙ্গা থানা পুলিশ লাশের ময়না তদন্ত করে। এ ঘটনায় হামলাকারী চারজনকে আসামি করে শুক্রবার রাতে সাতক্ষীরা সদর থানায় একটি মামলা করেছেন চাচা শহিদুল ইসলাম।

এ ব্যাপারে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোস্তাফিজুর রহমান জানান, ময়না তদন্ত রিপোর্ট এখনও পাওয়া যায়নি। পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.