April 22, 2024
আঞ্চলিক

সাতক্ষীরার সাত উপজেলায় ভোটগ্রহণ আজ

 

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি

শেষ হয়েছে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের সকল আনুষ্ঠানিক প্রচার প্রচারণা। রাত পোহালেই রবিবার সকাল থেকে হচ্ছে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ভোট। গতকাল শনিবার সকাল থেকে জেলার নির্বাচনী কেন্দ্রে কেন্দ্রে নির্বাচন সামগ্রী যাচ্ছে। সাতটি উপজেলার ৫৯৭টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে ৪৯৭টি কেন্দ্রই ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করেছে জেলা পুলিশের বিশেষ শাখা। এসব ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রসহ সর্বত্র সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনে নেওয়া হয়েছে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা। নির্বাচনের দিন ছয় স্তরের নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা থাকবে সাতক্ষীরা। নির্বাচনকে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ করতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে সকল উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। নির্বাচনে কোন রকম অরাজকতা সহ্য করা হবে না বলে প্রশাসনের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে।

জেলা পুলিশ সুপার (এসপি) সাজ্জাদুর রহমান বলেন, কেন্দ্র দখলের চিন্তা যদি কেউ করে, আর আমরা যদি সেটা জানি পারি এমনকি কারোর যদি বিশৃঙ্খলার পরিকল্পনাও থাকে তাহলে সে জীবন নিয়ে ঘরে ফিরতে পারবে না। প্রসঙ্গত, চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন ১৯ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী, ৩১ জন ভাইস চেয়ারম্যান ও ২৩ জন মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী জেলা নির্বাচন অফিস সূত্র জানায়, শনিবার সকাল থেকে কেন্দ্রে কেন্দ্রে যাচ্ছে ব্যালট বাক্স সহ ভোটের সরঞ্জাম। পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে তৃতীয় ধাপে আগামী ২৪ মার্চ সাতক্ষীরার ৭টি উপজেলায় এক যোগে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। গত ৮মার্চ প্রতীক বরাদ্দের পর থেকে কাকডাকা ভোর থেকে গভীর রাত পর্যন্ত প্রচার প্রচারণা চালিয়েছেন প্রার্থীরা। সাতক্ষীরার ৭ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন ১৯ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী, ৩১ জন ভাইস চেয়ারম্যান ও ২৩ জন মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী।

তবে প্রার্থীদের মধ্যে শুধুমাত্র দেবহাটা উপজেলার চেয়ারম্যান প্রার্থী ওজিয়ার রহমান (ন্যাশনাল পিপলস পার্টি) ছাড়া সকল প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীই আওয়ামীলীগ অথবা অঙ্গসহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মী। একই দলের একাধিক প্রার্থী হওয়ায় সাধারণ ভোটাররা অনেকটা বিব্রতকর অবস্থায় পড়েছেন বলে নির্বাচনী এলাকার একাধিক ভোটাররা দাবি করেছেন। তারা বলছেন যারা নৌকার বিরুদ্ধে লড়ছেন তারাও আওয়ামীলীগ করেন। আর যারা নৌকা প্রতীকের প্রার্থী তারা তো সরাসরি আওয়ামী লীগের প্রার্থী। সুতরাং কাকে ছেড়ে কাকে ভোট দেবেন এটা বুঝতে পারছেন না। এদিকে ২৪ মার্চ উৎসব মুখর পরিবেশে ভোট গ্রহনের লক্ষ্যে সাতক্ষীরা জেলার প্রতিটি এলাকায় পোস্টারে পোস্টারে ছেয়ে গেছে। শেষ সময় পর্যন্ত ভোট প্রত্যাশীরা ছুটে চলেছেন ভোটারদের দৌড় গোড়ায়।

সাতক্ষীরায় প্রার্থীরা হলেন- সাতক্ষীরা সদর উপজেলা:-সাতক্ষীরা সদর উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ৩ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৫ জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আসাদুজ্জামান বাবুর প্রতীক ‘নৌকা’। স্বতন্ত্র প্রার্থী (আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী) এস এম শওকত হোসেনের প্রতীক ‘আনারস’। অপর চেয়ারম্যান প্রার্থী গোলাম মোরশেদের প্রতীক ‘মোটরসাইকেল’। ভাইস চেয়ারম্যান পদে রাশিদুজ্জামান রাশি (চশমা), কাজী আকতার হোসেন (উড়োজাহাজ), অ্যাডভোকেট তামিম আহমেদ সোহাগ (টিয়া পাখি), তানভীর হুসাইন সুজন (টিউবওয়েল) এবং শাহজাহান আলী (মাইক) প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে লড়বেন। এ উপজেলার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে কহিনুর ইসলাম (প্রজাপতি), সোনিয়া পারভিন শাপলা (ফুটবল) এবং তহমিনা ইসলাম (কলস) প্রতীক।

কলারোয়া উপজেলা:-কলারোয়া উপজেলায় চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান তিন পদেই লড়ছেন ২ জন করে প্রার্থী। এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত ‘নৌকা’ প্রতীক নিয়ে লড়ছেন ফিরোজ আহমেদ স্বপন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে ‘আনারস’ প্রতীক লড়ছেন কলারোয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম লাল্টু। ভাইস চেয়ারম্যান পদে উপজেলা যুবলীগের সভাপতি কাজী আসাদুজ্জামান শাহাজাদা (উড়োজাহাজ) এবং আরাফাত হোসেন (মাইক) প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। এ উপজেলায় মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে শাহনাজ নাজনীন খুকু (হাঁস) এবং সেলিনা আনোয়ার ময়না প্রতীক (কলস) নিয়ে নির্বাচন লড়বেন।

তালা উপজেলা:-তালা উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে উপজেলা চেয়ারম্যান পদে ২ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪ জন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪ জনসহ মোট ১০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ দলীয় প্রতীক ‘নৌকা’ নিয়ে লড়ছেন বর্তমান চেয়ারম্যান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ঘোষ সনৎ কুমার, স্বতন্ত্র প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি এস এম ফজলুল হক লড়ছেন ‘আনারস’ প্রতীক নিয়ে। উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে বর্তমান চেয়ারম্যান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. ইখতিয়ার হোসেন লড়ছেন (টিউবওয়েল) প্রতীক নিয়ে। উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি সরদার মশিয়ার রহমান (উড়োজাহাজ), উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি আব্দুল জব্বার (তালা) এবং উপজেলা কৃষকলীগের সদস্য সচিব মো. আমিনুজ্জামান (চশমা) প্রতীকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান জেবুন্নেছা খানম পদ্মফুল, সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান মোস্তারী সুলতানা পুতুল (ফুটবল), খেশরা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য মুরশিদা পারভীন পাপড়ী (কলস) এবং সাংবাদিক সাকিলা ইসলাম জুই (হাঁস) প্রতীকে লড়ছেন।

আশাশুনি উপজেলা:-আশাশুনি উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ২ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৬ জন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২ জন প্রার্থীর প্রতীক বরাদ্দ করা হয়েছে। চেয়ারম্যান পদে এ উপজেলায় আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়নে ‘নৌকা’ প্রতীকে উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি এ বি এম মোস্তাকিম। তার প্রতিন্দন্দ্বিতা করবেন উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী অ্যাডভোকেট শহিদুল ইসলাম পিন্টু (আসারস )। ভাইস চেয়ারম্যান পদে আশাশুনি উপজেলায় স ম সেলিম রেজা সেলিম (মাইক) প্রতীক, জিএম আক্তারুজ্জামান (উড়োজাহাজ), এস এম সাহেব আলী (চশমা), অসীম বরণ চক্রবর্তী (টিউবওয়েল), এমডি ফিরোজ (টিয়াপাখি) এবং মতিলাল সরকার (তালা) প্রতীক পেয়েছেন। মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মোসলেমা খাতুন মিলি (কলস) এবং হেনা গাজী (ফুটবল) প্রতীক ।

দেবহাটা উপজেলা:-দেবহাটা উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ৫ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৫ জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল গনি পেয়েছেন দলীয় প্রতীক ‘নৌকা’, স্বতন্ত্র প্রার্থী সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট স ম গোলাম মোস্তফা পেয়েছেন ‘আনারস’ স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান মাহবুব আলম খোকন ঘোড়া, স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী সাঈদ মাহফুজুর রহমান মোটর সাইকেল এবং ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) চেয়ারম্যান প্রার্থী ওজিয়ার রহমান পেয়েছেন আম প্রতীক। ভাইস চেয়ারম্যান পদে উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান মিন্নুর পেয়েছেন (উড়োজাহাজ), যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মনিরুল ইসলাম মনি (টিউবওয়েল), ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি হাবিবুর রহমান সবুজ (তালা) এবং ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) প্রার্থী সাংবাদিক রিয়াজুল ইসলাম পেয়েছেন (আম) প্রতীক। দেবহাটার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী মিসেস আমেনা রহমান পেয়েছেন (পদ্মফুল), প্রিয়াংকা রানী পেয়েছেন (প্রজাপতি), আফরোজা পারভীন পেয়েছেন (ফুটবল) এবং জিএম স্পর্শ পেয়েছেন (কলস) প্রতীক।

কালিগঞ্জ উপজেলা:-কালিগঞ্জ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ৩ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৭ জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রতীক ‘নৌকা’ নিয়ে লড়বেন শেখ আতাউর রহমান। উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাঈদ মেহেদী লড়বেন ঘোড়া এবং শেখ মেহেদী হাসান সুমন লড়বেন ‘আনারস’ প্রতীক নিয়ে। ভাইস চেয়ারম্যান পদে আবদুল হাকিম (টিয়া পাখি), শেখ ইকবাল আলম বাবলু (বই), ডিএম সিরাজুল ইসলাম (মাইক), জাহাঙ্গীর কবির (উড়োজাহাজ), নাজমুল আহসান (তালা), আবদুল হামিদ সরদার (চশমা) এবং আবদুল কুদ্দুস (টিউবওয়েল) প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন। এ উপজেলায় মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে জেবুন্নাহার জেবু (পদ্মফুল), দিপালী রানী ঘোষ (ফুটবল), ফারজানা শওকত (হাঁস) এবং আফসানা খাতুন (কলস) প্রতীক নিয়ে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছেন।

শ্যামনগর উপজেলা:-দেশের সর্ববৃহৎ উপজেলা শ্যামনগরে ২ পদের বিপরীতে লড়বেন মোট ১০ জন। এখানে চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন ৩ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪ জন এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪ জন প্রার্থী। এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রতীক ‘নৌকা’ নিয়ে লড়ছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এসএম আতাউল হক দোলন। তার প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী ওসমান গণির প্রতীক ‘দোয়াত কলম’। শ্যামনগরে ভাইস চেয়ারম্যান পদে স.ম আবদুর সাত্তার (তালা), সাঈদুজ্জামান সাঈদ (টিউবওয়েল), শেখ মিজানুর রহমান (উড়োজাহাজ) এবং শেখ ফারুক হোসেন (চশমা) প্রতীক বরাদ্দ পেয়েছেন। এ উপজেলায় মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নূরজাহান পারভীন ঝর্ণা (পদ্মফুল), খালেদা আইয়ুব ডলি (হাঁস), পাপিয়া হক (কলস) এবং নাফিজা রাজ্জাক (ফুটবল) প্রতীক।

অনুষ্ঠিতব্য উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে সাতক্ষীরা জেলার সাতটি উপজেলার ৫৯৭টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে ৪৯৭টি কেন্দ্রই ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করেছে জেলা পুলিশের বিশেষ শাখা। এসব ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রসহ সর্বত্র সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনে নেওয়া হয়েছে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা। নির্বাচনের দিন ছয় স্তরের নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা থাকবে সাতক্ষীরা। ২২ মার্চ সাতক্ষীরা জেলা পুলিশের বিশেষ শাখা সূত্র জানায়, সাতক্ষীরা সদর উপজেলায় ১৩৭টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ করা হবে। এর মধ্যে ১২৩টি ঝুঁকিপূর্ণ রয়েছে।

 

 

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *