সাঈদীপুত্র মাসুদ কারাগারে

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক
যুদ্ধাপরাধী জামায়াত নেতা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর ছেলে পিরোজপুরের ইন্দুরকানী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মাসুদ সাঈদীকে বিস্ফোরক মামলায় কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। গতকাল মঙ্গলবার পিরোজপুরের অতিরিক্ত জেলা দায়রা জজ শামসুল হক এ আদেশ দেন।
রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী খান মোহাম্মদ আলাউদ্দিন বলেন, “গত বছরের ২৫ ডিসেম্বর রাতে ইন্দুরকানি উপজেলার সাঈদখালী গ্রামে একটি বাড়িতে বসে জামায়াতে ইসলামী নেতাদের নিয়ে বৈঠক করছিলেন মাসুদ। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ওই বাড়ি থেকে ৫টি পেট্রোল বোমা ও কয়েকটি ককটেলসহ দুই জামায়াতকর্মীকে আটক করে।
আলাউদ্দিন বলেন, এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মাসুদ পালিয়ে যান বলে মামলায় অভিযোগ করা হয়েছে। এ ঘটনায় পরদিন ২৬ ডিসেম্বর ইন্দুরকানী থানার এস আই ওহিদুজ্জামান বাদী হয়ে বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে মাসুদ সাঈদীসহ তিনজনের নাম উলে­খ করে অজ্ঞাত পরিচয় আরও ১২ জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে দায়ের করা এই মামলায় হাই কোর্ট থেকে ছয় সপ্তাহের আগাম জামিনে ছিলেন মাসুদ।
অ্যাডভোকেট খান মোহাম্মদ আলাউদ্দিন জানান, হাই কোর্টের জামিনের মেয়াদ শেষ হওয়ার পর মাসুদ মঙ্গলবার পিরোজপুরের আদালতে হাজির হয়ে ফের জামিনের আবেদন করেন; আদালত শুনানি শেষে আবেদন নাকচ করেন।
দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর ছোট ছেলে হলেন মাসুদ সাঈদী। বড় ছেলে হলেন শামীম সাঈদী। শামীম একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পিরোজপুর-১ (পিরোজপুর সদর-নাজিরপুর-নেছারাবাদ) আসনে ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী হিসেবে ধানের শীষ প্রতীকে নির্বাচন করে পরাজিত হন। মুক্তিযুদ্ধে মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর কেন্দ্রীয় নেতা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর আজীবন কারাদণ্ড হয়েছে।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.