সাইপ্রাসে যাওয়ার ১০দিন পর লাশ হলো কলারোয়া ও ঝিকরগাছার দুই যুবক

কলারোয়া (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি

এই শোক সইবার নয়। একই সাথে ঝরে গেল দুই তাজা প্রাণ। পরিবারের সুখের আশায় তারা দুজন গত ৩০জানুয়ারী পাড়ি দিয়েছিলো সাইপ্রাসে। একটি ভালো কোম্পানিতে কাজও জুটেছিলো তাদের। কিন্তু ভাগ্যের কি নির্মম পরিহাস একটি সড়ক দূর্ঘটনা কেড়ে নিলো পরিবারের সমস্ত আশা ভরসার একমাত্র অবলম্বনটুকুও। সবাইকে কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে চলে গেলো কলারোয়ার সাইফুল ইসলাম মালী (২৮) ও ঝিকরগাছার রিপন হোসেন (২৮)। ভাগ্যের কাছে হার মানালো তাদের ও পরিবারের স্বপ্ন।

সাইফুল ইসলাম মালী সাতক্ষীরা জেলার কলারোয়া উপজেলার ফয়জুল্লাপুর গ্রামের মৃত আবুল হোসেন। গ্রামের বাড়িতে মা, স্ত্রী ও একপুত্রসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রয়েছে তার। আর রিপন হোসেন বাগআঁচড়ার পার্শ্ববর্তী যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার বড়পোদাউলিয়া গ্রামের শাহজান মোড়লের ছেলে। তার পরিবারেও রয়েছে এক ছেলে, স্ত্রী ও মা-বাবাসহ অসংখ্য স্বজন। বিদেশ যাওয়ার মাত্র ১০দিনের ব্যবধানে লাশ হলো সাইফুল ও রিপন। রোববার সকালে পরিবারের ঘুম ভাংলো তাদের মৃত্যু সংবাদে।

নিহত দুই বাংলাদেশির স্বজনরা জানিয়েছে-সাইপ্রাসে গত রাতে খাওয়ার পরে সাইফুল ও রিপন দুইজন বাইরে বের হয়। রাস্তা দিয়ে হাটার সময় পিছন দিক থেকে এক ঘাতক গাড়ি তাদের স্বজরে ধাক্কা দিলে ঘটনাস্থলে সাইফুল মারা যায়। রিপন তখনও মৃত্যু যন্ত্রনায় ছটফট করতে থাকে। স্থানীয় পুলিশ তাকে হাসপাতালে নেয়ার পথে রিপন হোসেনও শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করে। এমন হৃদয় বিদারক মৃত্যুর খবর দেশে পরিবারের কাছে পৌছালে পরিবারের আর্তনাদ আর আহাজারীতে এলাকা ভারী হয়ে ওঠে। এলাকা জুড়ে চলছে শোকের মাতম।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *