শ্রমিক ফেডারেশনের স্মরণসভায় নেতৃবৃন্দ হাফিজুর রহমান ছিলেন সাম্যবাদী

হাফিজুর রহমান ছিলেন সাম্যবাদী চিন্তায় বিশ্বাসী রাজনৈতিক নেতা

খবর বিজ্ঞপ্তি

জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সভাপতি, পাট-সুতা-বস্ত্রকল সংগ্রাম পরিষদের কেন্দ্রীয় যুগ্ম আহ্বায়ক কিংবদন্তী শ্রমিক নেতা কমরেড হাফিজুর রহমান ভূইয়ার ২য় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে গতকাল বুধবার বিকেল ৪টায় নগরীর উমেশচন্দ্র পাবলিক লাইব্রেরীতে ফেডারেশনের জেলা কমিটির উদ্যোগে এক স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হয়। সংগঠনের জেলা সভাপতি শ্রমিকনেতা মনির আহমেদের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শ্রমিকনেতা কামরুল আহসান।

প্রয়াত কমরেড হাফিজুর রহমানের স্মৃতিচারণ করে প্রধান অতিথি বলেন, হাফিজভাই কেবল শ্রমিকনেতাই ছিলেন না, তিনি সাম্যবাদী চিন্তায় বিশ্বাসী একজন রাজনৈতিক নেতাও ছিলেন। লোভ-লালসা তাঁকে গ্রাস করতে পারেনি। জীবনে বহু সুযোগ আসার পরও বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ ডিগ্রীধারী এই মানুষ শ্রমিক আন্দোলন সংগঠিত করতে সব সময়ে শ্রমিকদের পাশে ছিলেন।

ফেডারেশনের জেলা কমিটির সহ-সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার উদ্দিন দিলুর সঞ্চালনায় স্মরণসভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কমরেড দিপঙ্কর সাহা দিপু ও খুলনা জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক কমরেড এড. মিনা মিজানুর রহমান। প্রধান বক্তা ছিলেন জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক শ্রমিকনেতা মোজাম্মেল হক। এছাড়াও বক্তব্য রাখেন ফেডারেশনের জেলা কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি শেখ মফিদুল ইসলাম, জেলা নেতা এস এম ফারুখ-উল ইসলাম, তপন কুমার রায়, মোঃ খলিলুর রহমান, আঃ মজিদ মোল্যা, আঃ হামিদ মোড়ল, আব্দুস সাত্তার মোল্যা, কৃষক সমিতির জেলা সাধারণ সম্পাদক গাজী নওশের আলী, যুব মৈত্রীর জেলা সভাপতি রেজওয়ান হোসেন রাজা, ছাত্র মৈত্রীর জেলা নেতা বিকাশ মন্ডল প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.