লিটনের ব্যাটে চট্টগ্রামকে হারালো রাজশাহী

ক্রীড়া ডেস্ক

লিটন দাসের ঝড়ো হাফ সেঞ্চুরিতে দারুণ জয় পেল রাজশাহী রয়্যালস। বঙ্গবন্ধু বিপিএলে শনিবার লিগ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সকে ৮ উইকেটে হারিয়েছে তারা। ৪৮ বলে ১১টি চার ও একটি ছক্কার সাহায্যে ৭৫ রান করেন রাজশাহীর ওপেনার লিটন।

এই জয়ের ফলে পয়েন্ট টেবিলে শীর্ষে উঠে গেছে রাজশাহী। ১২ ম্যাচ খেলে তাদের পয়েন্ট ১৬। অন্যদিকে, লিগ পর্বে চট্টগ্রামেরও এটি শেষ ম্যাচ ছিল। ১৬ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে তারা। দুই দলই প্লে-অফে খেলবে। গতকাল সন্ধ্যায় খুলনা টাইগার্স ও ঢাকা প্লাটুনের ম্যাচের পর জানা যাবে প্লে-অফে কোন দল কার বিপক্ষে খেলবে।

এদিন মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচটি চট্টগ্রামের দেয়া ১৫৬ রানের জয়ের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ১৭.৪ ওভারে ২ উইকেট হারিয়ে জয় তুলে নেয় রাজশাহী। লিটন ছাড়াও ভালো খেলেন আফিফ হোসেন ও শোয়েব মালিক। ৩২ করে আউট হন আফিফ। আর ২৫ বলে ৪৩ করে অপরাজিত থাকেন মালিক।

রাজশাহী ব্যাটিংয়ে নেমে দুর্দান্ত সূচনা করে। ওপেনিংয়ে ৮৮ রানের জুটি গড়েন লিটন ও আফিফ। ১১তম ওভারে আফিফ আউট হয়ে গেলে লিটনের সঙ্গে জুটি বাঁধেন শোয়েব মালিক। দুজনে ৫০ রানের জুটি গড়েন। দলীয় ১৩৮ রানে জিয়াউরের বলে লিটন এলবিডবিøউ হন।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেটে ১৫৫ রান সংগ্রহ করে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। চট্টগ্রাম ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা ভালো করতে পারেনি। পাওয়ারপ্লেতে বিনা উইকেটে তারা ৩৮ রান তোলে। সপ্তম ওভারে ভাঙে চট্টগ্রামের ওপেনিং জুটি। ফিরে যান জুনায়েদ সিদ্দিক। তার সংগ্রহ ২৩ রান।

গত ম্যাচের মতো এই ম্যাচেও অল্পতেই ফিরে যান ক্রিস গেইল। ২১ বলে ২৩ করে তিনি রাসেলের হাতে ক্যাচ হন। দলীয় ৬৯ রানে বিদায় নেন ইমরুল। চতুর্থ উইকেট জুটিতে ২৪ রানের পার্টনারশিপ করেন রিয়াদ ও ওয়ালটন। দলীয় ৯৩ রানে রাহির শিকার হন ওয়ালটন।

তারপর রিয়াদ ও সোহানের ব্যাটে এগিয়ে যেতে থাকে চট্টগ্রাম। ১৬ বলে ৩০ করে ইরফানের বলে বোপারার হাতে ধরা পড়েন সোহান। পরে রিয়াদ ও জিয়াউর রহমান ইনিংস শেষ করে আসেন। ৩৩ বলে ৪৮ করে অপরাজিত থাকেন অধিনায়ক রিয়াদ।

রাজশাহীর বোলারদের মধ্যে মোহাম্মদ ইরফান ১টি, আবু জায়েদ ১টি, শোয়েব মালিক ১টি, আফিফ হোসেন ১টি ও তাইজুল ইসলাম ১টি করে উইকেট নেন।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.