রোহিঙ্গাদের ফিলিপাইনের নাগরিকত্বের প্রস্তাব

ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট রড্রিগো দুতার্তে রোহিঙ্গাদের ফিলিপাইনের নাগরিকত্ব দিতে ইচ্ছা পোষণ করেছেন।

একটি সভার আগে ভাষণ দেওয়ার সময়  তিনি বলেন “আমি রোহিঙ্গাদের গ্রহণ করতে ইচ্ছুক”। ফিলিপাইনের অন্যতম বাণিজ্যিক ওয়েবসাইট জি এম এ নিউজ(https://bit.ly/2Sr36MN)থেকে এ তথ্য পাওয়া যায়।

এর আগে গত বছরের এপ্রিলে দুতার্তে বলেন মায়ানমারের গণহত্যার পর তার সরকার রোহিঙ্গাদের সাহায্য করতে প্রস্তুত ছিল।

এরপর তিনি মায়ানমারের ক্ষমতাসীন নেতা অং সাং সুকি কে জনসম্মুখে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানান।

ঘটনাটি এমন একটি সময় ঘটল যখন বাংলাদেশ রোহিঙ্গাদের ঢল নিয়ে বেশ বিপাকে আছে এবং মায়ানমার ও রোহিঙ্গাদের গ্রহণে সময় ক্ষেপণ করছে।

কমপক্ষে সাড়ে সাত লক্ষ রোহিঙ্গা মায়ানমারের রাখাইন রাজ্য থেকে পালিয়ে আসে বাংলাদেশে মায়ানমারের আর্মি অত্যাচার এবং গণহত্যার পর। এর আগে আরো তিন লক্ষ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে অবস্থান করছিল যারা বিভিন্ন সময়ে এ দেশে আসে।

১৯৭৫ সালে ভিয়েতনাম যুদ্ধের পর ভিয়েতনাম হতে আগত শরণার্থীদের অবস্থান করতে দেয় তৎকালীন মায়ানমার সরকার। এর আগেও ১৯৩০ সালে ইজরাইলি গণহত্যার সময় বেশ সংখ্যক ইজরাইলি কে তারা আশ্রয় দিয়েছিল।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.