রাশিয়ার সীমান্তে সতর্কবস্থায় ৮৫০০ মার্কিন সেনা

রাশিয়ার সীমান্তের কাছে ইউক্রেনের প্রান্তে সাড়ে আট হাজার মার্কিন সেনা মোতায়েন করেছে যুক্তরাষ্ট্র। তাদের উচ্চ সতর্কতায় রাখা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৫ জানুয়ারি) জার্মান সংবাদমাধ্যম ডয়চে ভেলে এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্র জানিয়েছে, যেভাবে ইউক্রেন সীমান্তে রাশিয়া এক লাখ সেনা মোতায়েন করেছে এবং প্রতিদিন উত্তেজনা বাড়াচ্ছে বিষয়টি মাথায় রেখেই এই পদক্ষেপ নিয়েছে দেশটি। পাশাপাশি ন্যাটোও পূর্ব ইউরোপে সেনা মোতায়েন করছে।

এর আগে সোমবার ন্যাটো পূর্ব ইউরোপে অতিরিক্ত যুদ্ধবিমান এবং যুদ্ধজাহাজ মোতায়েন করার কথা জানায়, যা ইউক্রেন সীমান্তে কড়া নজর রাখবে।

যুক্তরাষ্ট্র এবং ন্যাটোর এই পদক্ষেপ স্বাভাবিকভাবেই ভালো চোখে দেখছে না মস্কো। ওইদিনই রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এক বিবৃতিতে বলেছেন, ট্রান্স অ্যাটলান্টিক মিলিটারি লাল দাগ পার করলে কড়া ভাষায় তার জবাব দেবে রাশিয়া। অর্থাৎ আবারও একবার যুদ্ধের হুমকি দিয়েছেন পুতিন।

অবশ্য দেশটির দাবি, সীমান্তে নিরাপত্তার খাতিরেই সেনা মোতায়েন করেছে রাশিয়া। যুদ্ধের কোনো ইচ্ছে তাদের নেই। তবে ন্যাটো এবং যুক্তরাষ্ট্র আগ্রাসন দেখালে তারাও ছেড়ে কথা বলবে না।

সোমবার ব্রাসেলসে ন্যাটোর ২৭টি দেশ বৈঠকে বসেছিল। রাশিয়া যুদ্ধ ঘোষণা করলে কীভাবে ইউক্রেনকে সহায়তা করা হবে তা ঠিক করতেই এই বৈঠক। এ সময় সাইবার যুদ্ধেও ইউক্রেনকে অন্য দেশগুলো সাহায্য করবে বলে জানানো হয়।

এ দিনের বৈঠকে ন্যাটো প্রধান জেনস স্টলটেনবার্গ, মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও জার্মান চ্যান্সেলর ওলফ শোলৎসের রাশিয়াকে দ্রুত সেনা সরানোর কথা বলেছেন।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.