রানি এলিজাবেথের ছয়টি মজার ঘটনা

ব্রিটিশ সাম্রাজ্যের রানি হিসেবে জনসম্মুখে রাজকীয় ভাবগাম্ভীর্য বজায় রাখতে তাকে হয়তো বেশিরভাগ সময়ই কঠিন চেহারায় দেখা গেছে। তবে এর মধ্যেও দারুণ রসবোধের পরিচয় দিয়ে অনেকবারই মানুষকে হাসিয়েছেন সদ্যপ্রয়াত রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ। চলুন দেখে নেওয়া যাক তেমনই কয়েকটি ঘটনা-

প্যাডিংটন বিয়ারের সঙ্গে টি পার্টি
গত জুন মাসে রানির প্ল্যাটিনাম জয়ন্তী উদযাপনের অংশ হিসেবে একটি ভিডিওচিত্র তৈরি করা হয়, যেখানে দেখা যায়, তিনি ফিকশনাল চরিত্র প্যাডিংটন বিয়ারের সঙ্গে চা খাচ্ছেন। এটি প্রচার করা হয় তার সিংহাসনে আরোহণের ৭০ বছর পূর্তি উপলক্ষে প্রাসাদের একটি অনুষ্ঠানে।

ভিডিওতে দেখা যায়, অনুষ্ঠান শুরুর কিছুক্ষণ আগে একটি টেবিলে মুখোমুখি বসা রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ ও প্যাডিংটন বিয়ার। এসময় বাদামি ভালুকটি তার পছন্দের মারম্যালেড স্যান্ডউইচ রানিকে খেতে সাধে এবং বলে, জরুরি সময়ের জন্য আমি একটি (স্যান্ডউইচ) সবসময় সঙ্গে রাখি। জবাবে রানি তাকে হাসিমুখে জানান, তার কাছেও সবসময় খাবারটি থাকে। এটি বলে সত্যি সত্যি নিজের কালো ব্যাগ থেকে একটি স্যান্ডউইচ বের করেন তিনি।

জেমস বন্ডের সঙ্গে রানি
২০১২ লন্ডন অলিম্পিক গেমসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের অংশ হিসেবে নাটকীয় প্রবেশ দেখানো হয়েছিল রানি এলিজাবেথের। আর এতে তাকে সাহায্য করেছিলেন জনপ্রিয় ব্রিটিশ গোয়েন্দা চরিত্র জেমস বন্ড।

হলিউড পরিচালক ড্যানি বয়েলের নির্দেশনায় তৈরি একটি ভিডিওচিত্রে দেখানো হয়, বাকিংহাম প্যালেসে রানির সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে গেছেন জেমস বন্ড (অভিনেতা ড্যানিয়েল ক্রেইগ)। পরে তারা একসঙ্গে বেরিয়ে হেলিকপ্টারে চড়েন। আর সেখান থেকে স্কাইডাইভ দিয়ে অলিম্পিক স্টেডিয়ামে প্রবেশ করেন রানি।

ফের ভাইরাল
২০১৬ সালের আরেকটি ভাইরাল ভিডিও ক্লিপে দেখা যায়, পৌত্র প্রিন্স হ্যারির সঙ্গে ‘ইনভিকটাস গেমসের’ প্রচারণায় অংশ নিয়েছেন ব্রিটিশ রানি। এটি পক্ষাঘাতগ্রস্ত, আহত বা অসুস্থ কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য আয়োজিত একটি আন্তর্জাতিক ক্রীড়া অনুষ্ঠান। ২০১৪ সালে প্রথমবার অনুষ্ঠিত হয়েছিল ইনভিকটাস গেমস।

ভিডিওচিত্রে দেখানো হয়, রানি এলিজাবেথকে ইনভিকটাস গেমসের কিছু ছবি দেখাচ্ছেন প্রিন্স হ্যারি। এসময় হ্যারির মোবাইলে একটি ভিডিওবার্তা আসে। সেটি চালু করতেই দেখা যায়, তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ও ফার্স্টলেডি মিশেল ওবামা দাঁড়িয়ে রয়েছেন। তারা প্রিন্স হ্যারিকে ইনভিকটাস গেমসের জন্য চ্যালেঞ্জ জানান। শুনে রানি হাসতে হাসতে বলেন, ওহ, তাই নাকি!

তলোয়ার দিয়ে কেক কাটা
রানি তার জীবদ্দশায় বহু কেক কেটেছেন, তবে একবার কেটেছিলেন তলোয়ার দিয়ে। ২০২১ সালে কর্নওয়ালের একটি দাতব্য অনুষ্ঠানে তিনি এমন অদ্ভুত কাণ্ড ঘটিয়েছিলেন।

কেক কাটার আগে এক স্বেচ্ছাসেবক তাকে মনে করিয়ে দেন, এর জন্য ছুরি আছে। জবাবে রানি বলেছিলেন, আমি জানি। এরপরও তলোয়ার দিয়ে কেক কাটার সিদ্ধান্তে অটল থাকেন তিনি। বলেন, এটাই অসাধারণ।

‘ফটোবোম্ব’ রানি
রানির সঙ্গে একটা ছবি তুলতে পারা যেখানে অনেকের জন্যই ভাগ্যের ব্যাপার, সেখানে অস্ট্রেলিয়ার দুই হকি খেলোয়াড়ের ছবিতে ‘ফটোবোম্ব’ হিসেবে নিজেই ধরা দিয়েছিলেন তিনি। ঝড়ের বেগে ভাইরাল হয় সেটিও।

২০১৪ সালে গ্লাসগো কমনওয়েলথ গেমসে ঘটেছিল এ ঘটনা। অস্ট্রেলীয় খেলোয়াড় জেড টেইলর তার এক সতীর্থের সঙ্গে ছবি তোলার সময় হঠাৎ পেছন থেকে হাসিমুখে পোজ দেন রানি। টুইটারে ছবিটি পোস্ট করে টেইলর লেখেন, আহ, রানি আমাদের সেলফিতে ফটোবোম্ব হয়েছেন রানি।

অনুষ্ঠানে মৌমাছির বাগড়া
প্রয়াত স্বামী প্রিন্স ফিলিপের সঙ্গে হাজারো অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছিলেন রানি। তবে ২০০৩ সালে উইন্ডসর ক্যাসেলের একটি সামরিক অনুষ্ঠানে ঘটে যায় অনভিপ্রেত, কিন্তু হাস্যোজ্জ্বল এক ঘটনা।

সেদিন একঝাঁক মৌমাছির কারণে অনুষ্ঠানের স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় বাধা পড়ে। তবে তাতে বিরক্ত না হয়ে উল্টো মজা নিতে থাকেন রাজ দম্পতি। আর সেই দৃশ্য ধরা পড়ে ফটোগ্রাফার ক্রিস ইয়াংয়ের ক্যামেরায়। তার ভাষ্যমতে, রানি সেসময় বাচ্চাদের মতো হাসছিলেন। হাসি ছিল তার স্বামীর মুখেও।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.