যেসব ভুল স্মার্টফোনের আয়ু কমায়

স্মার্টফোন এখন আমাদের নিত্যসঙ্গী। একবিংশ শতাব্দীতে এসে স্মার্টফোন ছাড়া জীবন প্রায় অচল। গ্যাজেটটির চাহিদা দিন দিন বেড়েই চলেছে। শুধু যোগাযোগের মাধ্যমই নয় আরও অনেক কাজে ব্যবহার হচ্ছে স্মার্টফোন। বাচ্চাদের অনলাইন ক্লাস থেকে আপনার অফিস মিটিং করোনাকালে বিশ্বব্যাপী।

তবে সঠিকভাবে এর ব্যবহার না করেন তাহলে বিপদ ঘনিয়ে আসতে পারে খুব শিগগিরই। স্মার্টফোন ব্যবহারে কিছু ভুল আমরা প্রায়ই করে থাকেন। যেমন ধরুন স্মার্টফোনকে ওভার চার্জ করা, সঙ্গে নিয়ে ঘুমানো কিংবা অ্যাডাপ্টার পরিবর্তন করে চার্জ দেওয়া। এসব ভুলে খুব তাড়াতাড়ি স্মার্টফোনের আয়ু কমে যেতে পারে।

তবে বেশিরভাগ সময়ই ভুলভাবে স্মার্টফোন চার্জ করার কারণে শুধু তাদের ব্যাটারির আয়ুই কমে না, স্মার্টফোনের আয়ুও কমতে থাকে। চলুন দেখে নেওয়া যাক কোন কাজগুলোর কারণে ফোনের আয়ু কমছে-

>> অনেকেই স্মার্টফোন একেবারে ১০০ শতাংশ চার্জ করেন। এটি কিন্তু ভুল একটি কাজ। স্মার্টফোন সবসময় ৮০ শতাংশ পর্যন্ত চার্জ করা উচিত। এর সাহায্যে শুধু ফোনের ব্যাটারির স্বাস্থ্যই ভালো থাকবে না, স্মার্টফোনও দীর্ঘদিন সমস্যহীন থাকবে।

>> অনেকেই স্মার্টফোন চার্জ করার জন্য ডুপ্লিকেট চার্জার ব্যবহার করেন। এই অসাবধানতার জন্য স্মার্টফোনের বড় ক্ষতি হতে পারে। এতে ফোনের ব্যাটারি লাইফ মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয় ও একই সঙ্গে স্মার্টফোনও নষ্ট হয়ে যেতে পারে।

>> স্মার্টফোন চার্জে দিয়ে অনেকেই ফেসবুক স্ক্রোল করেন কিংবা গেম খেলেন। যা খুবই বিপজ্জনক তো বটেই।, সেই সঙ্গে ফোনের আয়ু কমে যায় অনেকখানি। স্মার্টফোনের প্রসেসরের ওপর চাপ অনেক বেশি বেড়ে যায়, যে কারণে ব্যাটারি গরম হওয়ার সমস্যা দেখা যায়। এতে আপনার ফোনের ব্যাটারি দ্রুত নষ্ট হয়ে যেতে পারে।

>> অনেকেই সারারাত স্মার্টফোন চার্জে দিয়ে রাখেন। এতে আপনার ফোন ওভার চার্জ হতে থাকে। যা ব্যাটারির জন্য খুবই ক্ষতিকর। এতে খুব দ্রুত ফণের ব্যাটারি নষ্ট হয়ে যেতে পারে। সেই সঙ্গে দেখা দিতে পারে ফোন ফগরম হয়ে যাওয়ার সমস্যা।

>> অনেকে বালিশের উপর বা নিচে স্মার্টফোন রেখে চার্জ করে থাকেন। এটি কখনই করবেন না। কারণ চার্জের সময়ে স্মার্টফোন যদি অতিরিক্ত গরম হয়ে যায় তবে, আগুন লাগার সম্ভাবনা দেখা দিতে পারে।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.