যশোরে অপহৃত এসএসসি পরীক্ষার্থী:খুলনার দৌলতপুর থেকে উদ্ধার দুই অপহরণকারী গ্রেফতার

 

দ: প্রতিবেদক

মুক্তিপণের দাবিতে ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার মান্দারবাড়ীয়া ইউনিয়নের কমলাপুর গ্রামের অপহৃত এসএসসি পরীক্ষার্থী মো. আশরাফুজ্জামান জিসানকে (১৬) খুলনা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। শনিবার রাতে খুলনা মহানগরীর দৌলতপুরের হাজী ইব্রাহীম রোডস্থ শেখ মতলেবুর রহমানের (তুষার) ভবনের মেস থেকে তাকে উদ্ধার করে র‌্যাব-৬’র একটি দল। এ ঘটনায় দুই অপহরণকারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গতকাল রবিবার র‌্যাবের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

আশরাফুজ্জামান জিসান কমলাপুর গ্রামের মো. আসাদুজ্জামান লিখনের ছেলে। তার বাবা স্থানীয় কমলাপুর হাই স্কুলের সহকারী সিনিয়র শিক্ষক। গত মঙ্গলবার বিকেলে যশোরের চৌগাছা থানা এলাকায় কোচিং শেষে বাড়িতে ফেরার পথে তাকে অপহরণ করা হয়।

র‌্যাব-৬, খুলনার বিজ্ঞপ্তিতে উলে­খ করা হয়, অপহরণের ঘটনায় জিসানের বাবা আসাদুজ্জামান লিখন গত বুধবার চৌগাছা থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন। শুক্রবার সকালে ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ চেয়ে তার মায়ের মোবাইলে ফোন করা হয়। মুক্তিপণের টাকা পাঠানোর জন্য অপহরণকারীরা বিকাশ নম্বর দেয়। এ সময় তার বাবা আসাদুজ্জামান লিখন তাৎক্ষণিকভাবে ৪০ হাজার এবং পরে আরো ৫ হাজার টাকা পাঠায়।

বিষয়টি র‌্যাব-৬, ঝিনাইদহ ক্যাম্পে লিখিত ও মৌখিকভাবে জানালে গোপন খবরের ভিত্তিতে শনিবার ভোরে খুলনার ফুলতলা উপজেলার বরনপাড়া গ্রাম থেকে তানভীর আহম্মেদকে (১৯) গ্রেফতার করা হয়। তার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী দুপুরে আব্দুল­াহ আল নাদিমকে (২০) ফুলতলার পথের বাজার এলাকায় আসলে তাকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তাদের স্বীকারোক্তি মোতাবেক বিকেলে দৌলতপুরের হাজী ইব্রাহীম রোডস্থ মেস থেকে জিসানকে উদ্ধার করা হয়। গ্রেফতার অপহরণকারী আব্দুল­াহ আল নাদিম যশোরের আরবপুর মোড় এলাকার মৃত মোর্শেদ মিয়ার ছেলে এবং তানভীর আহম্মেদ ফুলতলা উপজেলার বরনপাড়া গ্রামের সরোয়ার মোল­ার ছেলে।

র‌্যাবের কোম্পানি কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মাসুদ আলম বলেন, গ্রেফতারকৃতদের কাছ থেকে মুক্তিপণের টাকা প্রদানকৃত বিকাশ সিম কার্ডসহ ১০টি সিম কার্ড এবং দুটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.