মোড়েলগঞ্জে বালু উত্তোলনের হিড়িক পড়েছে; প্রভাবশালী চক্র বেপরোয়া

 

 

জেলা প্রশাসকের হস্তক্ষেপ কামনা

 

শিব সজল যীশু ঢালী, মোড়েলগঞ্জ

বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জে অবৈধ ভাবে বোরিং মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলনের হিড়িক পড়েছে। স্থানীয় একটি প্রভাবশালী চক্র উপজেলার বনগ্রাম ইউনিয়নের জয়পুর-বনগ্রাম এলাকার একটি খাল থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে রমরমা ব্যবসা শুরু করেছে। এছাড়া হোগলাপাশা ইউপি’র মহিষপুরা এলাকার একটি সরকারী পুকুর থেকে অনুরূপ বালু উত্তোলনের ঘটনা এলাকাবাসীকে হতবাক হয়েছে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, স্থানীয় কতিপয় নেতার ছত্রছায়ায় থাকা এই চক্রটি আইনের প্রতি বৃদ্ধাঙ্গুল দেখিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন ঘনবসতি এলাকায় অবাধে বালু উত্তোলনের ফলে জনসাধারনের মধ্যে রিতিমত আতংক দেখা দিয়েছে। বালু উত্তোলনের ফলে একদিকে ফসলি জমি বিনষ্ট হচ্ছে। অন্যদিকে বিভিন্ন বসতবাড়ী হুমকির মুখে পড়েছে বলে এলাকাবাসীর দাবি।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে জনৈক শিক্ষক বলেন, আমার মনে হয় প্রভাবশালী চক্রটি প্রশাসনের সহায়তায় বালু উত্তোলনের কাজ চালিয়ে যাচ্ছে দেদারছে। এ কাজে কেউ বাধা দিতে এলে তাদেরকে বিভিন্ন হুমকি দিয়ে চুপ থাকতে বাধ্য করছে বালু উত্তোলনকারী বেপরোয়া চক্রটি। এভাবে বালু উত্তোলন অব্যাহত থাকলে রাস্তা-ঘাটসহ এলাকাবাসী খুব কম সময়ের মধ্যে ব্যাপক ক্ষতির সম্মুখিন হবেন এমন ধারনা করেছেন সচেতন মহল।

এছাড়া হোগলাপাশা ইউনিয়নবাসীর একমাত্র পানি পানের এ পুকুর থেকে বালু উত্তোলনের ফলে এলাকায় খাবার পানির জন্য তীব্র সংকট দেখা দিয়েছে। অভিযোগ রয়েছে দীর্ঘদিন ধরে মোড়েলগঞ্জের হোগলাবুনিয়া, দৈবজ্ঞহাটী, বহরবুনিয়া, বলইবুনিয়া, রামচন্দ্রপুর, বনগ্রাম ও জিউধরা ইউনিয়নে কমপক্ষে ২০টি মেশিন সরকারি খাল, পুকুর ও বিলান জমিতে বোরিং করে বালু উত্তোলনে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, সরকারি কাজের ঠিকাদারসহ প্রভাবশালী ব্যক্তিরা। এ ব্যাপারে বাগেরহাট জেলা প্রশাসক তপন কুমার বিশ্বাস মহোদয়ের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ভুক্তভোগী এলাকাবাসি।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.