মোংলা বন্দরে যুক্ত হচ্ছে অত্যাধুনিক উদ্ধারকারী জাহাজ

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক
মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের নৌযান বহরে চলতি মাসেই যুক্ত হচ্ছে অত্যাধুনিক এম টি সুন্দরবন নামের একটি টাগ জাহাজ। দুর্ঘটনাকবলিত জাহাজ উদ্ধার ও জেটিতে জাহাজ বাঁধা এবং চ্যানেল দিয়ে জাহাজ আসা-যাওয়ার ক্ষেত্রে দুর্ঘটনারোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে এটি। মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ এ তথ্য জানিয়েছে।
মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার মাস্টার কমান্ডার দুরুল হুদা জানান, ৩৯ কোটি টাকা ব্যয়ে মালয়েশিয়া থেকে এম টি সুন্দরবন নামক এই টাগ জাহাজটি নির্মাণ করা হয়েছে। ইতিমধ্যে পূর্ব মালয়েশিয়ার শিবু এলাকায় জাহাজটির নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। ৪২ টন ক্ষমতা সম্পন্ন টাগ জাহাজটি নির্মাণ করেছে মালয়েশিয়ার কাইবুক শিপইয়ার্ড।
নবনির্মিত জাহাজে কোন ধরনের ক্রুটি-বিচ্যুতি রয়েছে কিনা তা সরেজমিনে পর্যবেক্ষণের জন্য এখন মালয়েশিয়ায় অবস্থান করছেন মোংলা বন্দরের হারবার মাস্টার নেতৃত্বাধীন কর্তৃপক্ষের একটি টিম। জাহাজের সব কিছু ঠিকঠাক থাকলেই আগামী এক থেকে দেড় সপ্তাহের মধ্যেই জাহাজটি মোংলা বন্দরে পৌঁছাবো বলে জানিয়েছেন হারবার মাস্টার দুরুল হুদা।
মোংলা বন্দর ব্যবহারকারী ইউনিক মেরিটাইমের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শেখ বদিউজ্জামান টিটু বলেন, উদ্ধারকারী এ টাগ জাহাজটি আরও আগেই ক্রয়ের প্রয়োজন ছিল, দেরিতে হলেও কর্তৃপক্ষ টাগটি সংযোজন করায় মোংলা বন্দরে জাহাজ আনা নেয়ার ক্ষেত্রে আমরা ঝুঁকিমুক্ত থাকতে পারবো।
বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান কমডোর একেএম ফারুক হাসান বলেন, এম টি সুন্দরবন নামক অত্যাধুনিক যে টাগ জাহাজটি ক্রয় করা হয়েছে তা দিয়ে বন্দর চ্যানেলের সার্বিক অপারেশন কার্যক্রম পরিচালিত হবে। ফলে দুর্ঘটনা থেকে রেহাই পাবে দেশি-বিদেশি বাণিজ্যিক জাহাজ। এছাড়া দ্রুত সময়ের মধ্যে উদ্ধার করা সম্ভব হবে দুর্ঘটনা কবলিত জাহাজ ও নৌযান।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.