মৃত হনুমানকে কাঁধে নিয়ে মনি পাগলের আহাজারি

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক
একটি হনুমানকে লালন-পালন করে আসছিলেন মাদারীপুরের এক মন্দিরের সেবায়েত, যাকে সাধক মনি পাগল নামেই সবাই চেনেন। সেই হনুমানটি বিদ্যুৎস্পৃষ্টে মারা যাওয়ার পর মনি পাগলের আহাজারিতে চোখ ভিজেছে অনেকের। মাদারীপুরের মস্তফাপুরের শ্রী শ্রী নরোত্তম ব্রজবাসী সেবাশ্রমের সেবায়েত মনি পাগল।
স্থানীয়রা জানায়, দুটি হনুমানের বাচ্চাকে উন্মুক্তভাবে লালন-পালন করতেন মনি পাগল। সেই জোড়া হনুমানের একটিকে কয়েক বছর আগে কে বা কারা বিষ খাইয়ে মেরে ফেলার পর একটি হনুমানই ছিল ওই আশ্রমে। বৃহস্পতিবার সকালে মস্তফাপুর বাসস্ট্যান্ডের কাছে একটি বহুতল ভবন থেকে লাফ দিলে বৈদ্যুতিক খুঁটির তারের সঙ্গে জড়িয়ে মারা যায় হনুমানটি। খবর পেয়ে মনি পাগল ছুটে এসে হনুমানের লাশটি কখনও কাঁধে, কখনও কোলে কিংবা কখনও মাটিতে রেখে কান্নাকাটি করছিলেন।
কান্না জড়িত কণ্ঠে তিনি বলছিলেন, আমার বুকের মধ্যে পোলা মইর‌্যা যাওয়ার ব্যথা হইতেছে। আমি এখন কোথায় পাবো আমার হনুমানটিকে। আগেরটিকে বিষ খাওয়াইয়া মারছে। এহন এই হনুমানটাও মরলো।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *