May 12, 2024
আঞ্চলিক

মানববর্জ্য প্রতিনিয়ত নগর এলাকার পরিবেশ দুষিত করছে : সিটি মেয়র

 

 

খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন, মানববর্জ্য ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে খুলনা সিটি কর্পোরেশন এশিয়ায় অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে চায়। এ সংক্রান্ত কাজের ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে পারলে এ লক্ষ্য অর্জন করা সম্ভব। তিনি বলেন এসডিজি অর্জনের লক্ষ্যে বর্তমার সরকার কাজ করছে। এর মধ্যে স্যানিটেশন বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। সে কারণে দেশব্যাপী এখনই স্যনিটেশন ব্যবস্থা জোরদার করা দরকার।

সিটি মেয়র গতকাল সোমবার নগরীর একটি অভিজাত হোটেলে ‘‘সিটি ওয়াইড ইনক্লুসিভ স্যানিটেশন ইন বাংলাদেশ’’ শীর্ষক কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন। আইটিএন-বুয়েট এবং বিল এন্ড মেলিন্দা গেটস ফাউন্ডেশনের সহযোগিতায় এসএনভি নেদারল্যান্ডস ও প্রাকটিক্যাল এ্যাকশন যৌথভাবে ৩ দিন ব্যাপী এ কর্মশালার আয়োজন করে।

সিটি মেয়র আরো বলেন, মানববর্জ্য প্রতিনিয়ত নগর এলাকার পরিবেশ দুষিত করছে। ড্রেনের সাথে সেফটিক ট্যাংকের আউটলেট বন্ধের উদ্যোগ নেয়ার পাশাপাশি বছরে ন্যুনতম একবার সেপটিক ট্যাংকি পরিস্কার করা প্রয়োজন। ইতোমধ্যে খুলনা সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে এ বিষয়ে ব্যাপক  জনসচেনতা বৃদ্ধির উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

কর্মশালায় অন্যান্যের মধ্যে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান, খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আলমগীর, এসএনভি’র কান্ট্রি ডাইরেক্টর জেসন বেলেনজার, খুলনা ওয়াসা’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো: আব্দুল্লাহ পিইঞ্জ, প্যাকটিক্যাল এ্যাকশনের কান্ট্রি ডাইরেক্টর হাসিন জাহান, বিল এন্ড মেলিন্দা গেটস ফাউন্ডেশনের ডেপুটি ডাইরেক্টর ড. রোশন রাজ শ্রেষ্ঠা, ফরিদপুর পৌরসভার মেয়র মাহতাব আলী, কেসিসি’র প্যানেল মেয়র মো: আমিনুল ইসলাম মুন্না, মো: আলী আকবর টিপু প্রমুখ বক্তৃতা করেন। খুলনা সিটি কর্পোরেশনসহ ১০টি পৌরসভার মেয়র, কাউন্সিলর, কর্মকর্তা, ৩৪টি সরকারি-বেসরকারি সংস্থার প্রতিনিধি এবং ভারত ও নেপাল  থেকে আগত প্রতিনিধিগণ কর্মশালায় অংশগ্রহণ করেন। কর্মশালার লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য তুলে ধরে বক্তৃতা করেন এসএনভি নেদারল্যান্ডস ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশনের এ্যাডভাইজার শহিদুল ইসলাম, প্রাকটিক্যাল এ্যাকশনের প্রতিনিধি উত্তম কুমার সাহা, ইউনিভার্সিটি অব এশিয়া প্যাসিফিকের প্রফেসর ড. মুজিবুর রহমান প্রমুখ।

 

 

 

 

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *