মাদারীপুরে যৌতুক মামলায় এসআইয়ের ৪ বছরের সাজা

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক
মাদারীপুরে স্ত্রীর যৌতুক মামলায় পুলিশের এক এসআইকে চার বছরের কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছে আদালত। গতকাল সোমবার মাদারীপুরের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম মোহাম্মদ হোসেন এ রায় ঘোষণা করেন। এছাড়া আদালত তাকে চার হাজার টাকা জরিমানা করেছে। জরিমানা না দিলে তাকে আরও দুই মাস কারাগারে থাকতে হবে। সাজাপ্রাপ্ত এসআই মাহিদুর রহমান সুমন সদর উপজেলার চন্দ্রদিঘলিয়া গ্রামের মোতালেব মিয়ার ছেলে। রায় ঘোষণার সময় তিনি আদালতে ছিলেন। এছাড়া এ মামলায় আরও চার আসামিকে বেকসুর খালাস দিয়েছে আদালত। ২০১৪ সালে এসআই সুমনের স্ত্রী শিখা আক্তারের দায়ের করা যৌতুক মামলায় আদালত এ রায় দেয়।
বাদীপক্ষের আইনজীবী বাবুল আখতার মামলার বলেন, ২০১৪ সালের ৫ ফেব্র“য়ারি ঢাকার সূত্রাপুর থানায় দায়িত্ব পালনের সময় এসআই মাহিদুর রহমান সুমন মাদারীপুর শহরে বাড়ি করার জন্য স্ত্রী শিখা আক্তারের কাছে পাঁচ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন। এর আগে বিয়ের সময় তাকে আট লাখ টাকার সোনার গয়না দেন শিখার বাবা মকবুল হোসেন ফকির।
শিখা পাঁচ লাখ টাকা দিতে অস্বীকার করলে সুমন তাকে মারধর করে এক কাপড়ে বাড়ি থেকে বের করে দেন। শিখার সঙ্গে তার দুই বছরের এক ছেলেকে পাঠিয়ে দেন সুমন। এছাড়া শিখা সে সময় অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন। এ অবস্থায় শিখা বাবার বাড়ি এসে ওই বছর ২৩ এপ্রিল সুমনসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে মাদারীপুরের আদালতে মামলা করেন। রায় ঘোষণার পর সুমনকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলে জানান আইনজীবী বাবুল আখতার।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.