মাদারীপুরে আ’লীগের সংর্ঘষে নিহত ১

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক
আধিপত্য বিস্তার নিয়ে মাদারীপুরে আওয়ামী লীগের দুইপক্ষের সংঘর্ষে দলের স্থানীয় এক কর্মী নিহত হয়েছেন; আহত হয়েছেন অন্তত পাঁচজন। মাদারীপুর সদর থানার ওসি কামরুল হাসান জানান, বুধবার সদর উপজেলার পাঁচখোলা ইউনিয়নের আনন্দবাজার এলাকায় এ সংঘর্ষ হয়। নিহত সাহেবালী মাতুব্বর পাঁচখোলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য। মাদারীপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। তাদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি।
স্থানীয়দের বরাত দিয়ে পুলিশ জানিয়েছে, দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় প্রভাব বিস্তার নিয়ে কালিকাপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এজাজুর রহমান আকন পক্ষের সঙ্গে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য সাহেবালী মাতুব্বর পক্ষের বিরোধ চলে আসছিল।
ওসি কামরুল হাসান বলেন, বুধবার দুপুরে পাঁচখোলা ইউনিয়নের আনন্দবাজার এলাকা দিয়ে সাহেবালী মাতুব্বর মাদারীপুর শহরের দিকে আসছিলেন। এ সময় পূর্বপরিকল্পিতভাবে তার উপর হামলা চালানো হয়। হামলাকারীরা সাহেবালীকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। এ সময় আরও অন্তত ৫ জন আহত হয়।
ওসি বলেন, স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। সাহেবালীর অবস্থার অবনতি হলে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে বিকাল ৩টার দিকে তার মৃত্যু হয়। নিহতের পরিবারের দাবি, পূর্ব শত্র“তার জের ধরে কালিকাপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান এজাজুর রহমান আকনের লোকজন তাকে হত্যা করেছে।
অভিযোগের ব্যাপারে কালিকাপুর ইউপি চেয়ারম্যান এজাজুর রহমান আকন বলেন, আমার লোকজন সাহেবালীর উপর হামলা করেনি; বরং সাহেবালীর লোকজন আমার আত্মীয়-স্বজনদের উপর হামলা করেছে। এখন আমাকে মিথ্যে মামলা দিয়ে হয়রানির চেষ্টা করছে। সদর থানার ওসি কামরুল হাসান বলেন, ঘটনার পর থেকে ওই এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে। নিহতের পরিবার চাইলে মামলা নেওয়া হবে।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.