February 25, 2024
আঞ্চলিক

মঞ্জুরুল ইমাম হত্যা মামলার পুন:তদন্ত ও বিচার খুলনাবাসীর প্রাণের দাবী

নগর ও জেলা আ’লীগের শোক সভায় সিটি মেয়র

 

খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক বলেন, এ্যাড. মঞ্জুরুল ইমাম একজন সাদা মনের মানুষ ছিলেন, একজন কর্মী বান্ধব, বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে লালন করা ব্যাক্তিত্ব ছিলেন।

তিনি আরোও বলেন, বিএনপি জামায়াত জোট সব সময় আওয়ামী লীগকে ধ্বংস করার লক্ষ্যে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত থাকে। এরই অংশ হিসেবে ২০০৩ সালের ২৫ আগস্ট সকালে এ্যাড. মঞ্জুরুল ইমাম যখন রিক্সাযোগে কোর্টের উদ্দেশ্যে যাচ্ছিলেন তখন বিএনপি জামায়াতের লেলিয়ে দেওয়া সন্ত্রাসীদের আক্রমনের শিকার হন এই কর্মীবান্ধব ও সততার প্রতীক। এসময় তিনি দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, এতদিনে এই নৃশংস হত্যাকান্ডের বিচার না হওয়া আমাদের জন্য কষ্টকর। অতি দ্রæত এই হত্যা মামলার পুন:তদন্ত পূর্বক বিচার এখন খুলনাবাসীর প্রাণের দাবী।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাবেক উপদেষ্ঠা মন্ডলীর সদস্য ও খুলনা মহনগর আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি এ্যাড. মঞ্জুরুল ইমামের ১৬ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষ্যে সকাল ৯টায় দলীয় কার্যালয় থেকে শোকর‌্যালী পূর্বক সমাবেশ এবং সন্ধ্যায় শোক সভা ও দোয়া মাহফিলে সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এছাড়া নগরীর শামসুর রহমান রোডস্থ মঞ্জুরুল ইমাম মঞ্চে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন দলীয় নেতৃবৃন্দ। এসময় একে একে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ সহ সকল অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠন শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এরপর নগরীর ছোট বয়রাস্থ এ্যাড. মঞ্জুরুল ইমামের কবর জিয়ারত করেন আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। কবর জিয়ারত শেষে পারিবারিক কবরস্থান সংলগ্ন মসজিদে ১৬নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের উদ্দোগে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। দুপুরে নগরীর বাইতিপাড়াস্থ মতি মসজিদে পরিবার ও ২৩নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের পক্ষথেকে এবং বিএল কলেজ মসজিদে কলেজ ছাত্রলীগের আয়োজনে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়া সন্ধ্যায় দলীয় কার্যালয়ে মহানগর ও জেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে স্মরণ সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

এসকল কর্মসূচিতে আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সদস্য এস এম কামাল হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোল্লা জালাল উদ্দিন, জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. সুজিত কুমার অধিকারী, আওয়ামী লীগের জাতীয় কমিটির সদস্য এ্যাড. চিশতি সোহরাব হোসেন শিকদার, আওয়ামী লীগ নেতা এ্যাড. কাজী বাদশা মিয়া, শেখ হায়দার আলী, কাজী এনায়েত হোসেন, বেগ লিয়াকত আলী, মল্লিক আবিদ হোসেন কবির, সংসদ সদস্য মো: আক্তারুজ্জামান বাবু, এ্যাড. রজব আলী সরদার, এমডিএ বাবুল রানা, বীর মুক্তিযোদ্ধা নূর ইসলাম বন্দ, শেখ মো: ফারুখ হোসেন, মো: কামরুজ্জামান জামাল, আবুল কালাম আজাদ কামাল, মো: আশরাফুল ইসলাম, আলহাজ্ব জোবায়ের আহমেদ খান জবা, এ্যাড আইয়ুব আলী শেখ, শ্যামল সিংহ রায়, মকবুল হোসেন মিন্টু, জামাল উদ্দিন বাচ্চু, কাউন্সিলর জেড এ মাহামুদ ডন, ফেরদৌস আলম চান ফারাজি, এ্যাড. খন্দকার মজিবর রহমান, এ্যাড. অলকা নন্দা দাশ, অধ্যাপক আলমগীর কবির, কাউন্সিলর আলী আকবর টিপু, অধ্যক্ষ শহিদুল হক মিন্টু, অধ্যপক মিজানুর রহমান মিজান, জাহাঙ্গীর হোসেন খান, শেখ ইউনুস আলী, কামরুল ইসলাম বাবলু, হাফেজ মো: শামীম, শেখ নুর মোহম্মদ, কাউন্সিলর শেখ মোশাররফ হোসেন, মো: শাহাজাদা, আব্দুল্লা হারুন রুমি, মাকসুদ আলম খাজা, স. ম. রেজওয়ান, উপজেলা চেয়ারম্যান শেখ আকরাম হোসেন,  এ্যাড. সাইফুল ইসলাম, সিদ্দিকুর রহমান বুলু বিশ্বাস, কাউন্সিলর ফকির মো: সাইফুল ইসলাম, একেএম সানাউল্লাহ নান্নু, শেখ সৈয়দ আলী, তসলিম আহমেদ আশা, মনিরুল ইসলাম বাশার, এ্যাড. রবিন্দ্রনাথ মন্ডল, মালিক সরোয়ার উদ্দিন, হাসান ইফতেখার চালু, কাউন্সিলর আমিনুল ইসলাম মুন্না, মোল্লা আবুল কাশেম, অধ্যাপক আশরাফুজ্জামান বাবুল, বিএম জাফর, এ্যাড. আব্দুল লতিফ, এইচ এম তৌহিদ, কাউন্সিলর লুৎফুন নেসা লুৎফা, হোসনে আরা চম্পা, শেখ মো: পীর আলী, এ্যাড. আনিসুর রহমান পপলু, রনজিত কুমার ঘোষ, অসিত বরন বিশ্বাস, শেখ মো: আবু হানিফ, মো: মোতালেব হোসেন, খান সাইফুল ইসলাম, এ্যাড. শেখ শাহাজালাল হোসেন সুজন, মো: পারভেজ হাওলাদার, আসাদুজ্জামান রাসেল, মো: ইমরান হোসেন, কাউন্সিলর হাফিজুর রহমান বিশ্বাস, কাউন্সিলর ইমাম হাসান চৌধুরী ময়না, কাউন্সিলর আনিসুর রহমান বিশ্বাস, কাউন্সিলর মোহম্মদ মাষ্টার, কাউন্সিলর আরিফুর রহমান মিঠু, এ্যাড. সেলিনা আক্তার পিয়া, এ্যাড. জেসমিন পারভিন জলি, চৌধুরী মিনহাজ উজ্জ জামান সজল, ফেরদৌস হোসেন লাবু, চ. ম. মুজিবুর রহমান, মঈনুল ইসলাম নাসির, শেখ আবিদ উল্লাহ, আব্দুল হাই পলাশ, মঈনুল ইসলাম নাসির, আলহাজ্ব এশারুল হক, ফায়েজুল ইসলাম টিটো, গোপাল চন্দ্র সাহা, আলহাজ্ব খন্দকার বাহাউদ্দিন, মীর মো: লিটন, শাহীন আলম, চয়ন বালা প্রমুখ।

এছাড়া রাজনীতি ও দেশ সেবায় মরহুম এ্যাড. সালাউদ্দিন ইউসুফ, সাংবাদিকতায় মরহুম আলহাজ্ব লিয়াকত আলী, সমাজ সেবায় মরহুম এস এম লিয়াকত হোসেনকে মরনোত্তর, মুক্তিযুদ্ধে অবদানের জন্য এ্যাড. শেখ আব্দুস সত্তার, আইন পেশা ও সেবায় এ্যাড. ময়ীন উদ দীন আহম্মেদ কে শহীদ মঞ্জুরুল ইমাম মঞ্চের পক্ষ থেকে মঞ্জুরুল ইমাম সম্মাননা পদক প্রদান করেন খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও খুলনা সিটি মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক।

সভা পরিচালনা করেন খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক এ্যাড. ফরিদ আহমেদ ও খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের উপ প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মো: মফিদুল ইসলাম টুটুল।

 

 

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *