ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধে ১২ কোটি মানুষের মৃত্যুর আশঙ্কা!

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক

কাশ্মীর পরিস্থিতি নিয়ে উত্তপ্ত ভারত ও পাকিস্তানের সম্পর্ক। এ পরিস্থিতির আরও অবনতি ঘটতে থাকলে দু’ দেশের মধ্যে যুদ্ধের সূত্রপাত হতে পারে। ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে পারমাণবিক যুদ্ধ হলে ৫ থেকে ১২ কোটি মানুষের মৃত্যুর আশঙ্কা রয়েছে। ‘দ্য মিউনিখ সিকিউরিটি রিপোর্ট ২০২০’ এর একটি প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে গতকাল মঙ্গলবার এ তথ্য জানায় আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম।

প্রতিবেদনটিতে বলা হয়, ২০২৫ সালে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে পারমাণবিক যুদ্ধের ফলে মারা যেতে পারেন ৫ থেকে ১২ কোটি মানুষ। সংঘাত ও প্রতিদ্ব›িদ্বতার কারণে ২০১৯ সালে এ অঞ্চলের প্রধান শক্তি ভারত, পাকিস্তান এবং চীনের মধ্যকার সম্পর্ক উত্তপ্ত হয়েছে। ভারত তাদের ‘পারমাণবিক ত্রয়ী’ সম্পন্ন করেছে এবং পাকিস্তানও তা করতে যাচ্ছে। আঞ্চলিক পারমাণবিক অস্ত্র প্রতিযোগিতার কারণে পরিস্থিতির আরও অবনতি ঘটছে। এছাড়া, এ অঞ্চলে আফগানিস্তানের পরিস্থিতিও অস্থিতিশীল।

২০১৯ সালের ১৪ ফেব্রæয়ারি সংঘটিত পুলওয়ামা হামলার কারণে ভারত-পাকিস্তানের মধ্যকার সম্পর্কের সঙ্কট বাড়ার কথা উল্লেখ করে প্রতিবেদনটিতে বলা হয়, এ পরিস্থিতিতে কাশ্মীরে যে কোনো হামলাই পারমাণবিক অস্ত্র শক্তিসম্পন্ন দু’টি দেশের মধ্যে সম্মুখ যুদ্ধের আশঙ্কা তৈরি করে।

ভারত ও পাকিস্তানের ১০০-১৫০টি পারমাণবিক অস্ত্র রয়েছে এটি অনুমান করে বলা হয়, ২০২৫ সালে যুদ্ধ হলে দু’ দেশের মধ্যে ১৫ থেকে ১০০ কিলোটন অস্ত্র বিনিময় হতে পারে। এতে ১ কোটি ৬০ থেকে ৩ কোটি ৬০ লাখ পর্যন্ত কালো কার্বন নিঃসরিত হতে পারে। সেই সঙ্গে এ অঞ্চলের ভূপৃষ্ঠে সূর্যালোকের পরিমাণ কমবে ২০-৩৫ শতাংশ। কৃষিজমির উৎপাদন ক্ষমতা কমবে ১৫-৩০ শতাংশ। সমুব্রের ক্ষেত্রে এটি কমবে ৫-১৫ শতাংশ। সব মিলিয়ে তাৎক্ষণিকভাবে মৃত্যু হতে পারে ৫ থেকে ১২ কোটি মানুষের।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *