ভারতীয়দের সাকিব বন্দনা

 

ক্রীড়া ডেস্ক

থামছেন না সাকিব আল হাসান। থামাতে পারছেন না তাকে প্রতিপক্ষরা। কী ব্যাট, কী বল ২২ গজে আপনমনে রাঙিয়ে চলেছেন তিনি। ক্যারিয়ারে বসন্ত চলা এই অলরাউন্ডারের দ্যুতি ছড়িয়ে পড়েছে ক্রিকেট বিশ্বের অলিগলিতে। তার প্রশংসায় মেতেছেন বিশ্বের সব ক্রিকেটপ্রেমী, আর সেটা এমনকি সামনের ম্যাচের প্রতিপক্ষ ভারতের ক্রিকেটভক্তরাও।

সা¤প্রতিক সময়ে ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের লড়াই অন্যরকম উত্তেজনা ছড়ায়। সেই তাদের বিপক্ষেই বিশ্বকাপে নিজেদের পরের ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। অথচ প্রতিপক্ষ দলের খেলোয়াড়কে নিয়ে মজেছেন ভারতীয়রা। আসলে আফগানিস্তানের বিপক্ষে সাকিবের অলরাউন্ড পারফরম্যান্স যে কোনও ক্রীড়ানুরাগীর মন জয় করে নিতে বাধ্য।

ব্যাটিংয়ে ৫১ রানের ইনিংস খেলার পর বোলিংয়ে ১০ ওভারে মাত্র ২৯ রান দিয়েছেন তিনি পেয়েছেন ৫ উইকেট। বাংলাদেশের কোটি ভক্তের সঙ্গে ভারতীয় ক্রিকেট সমর্থকরাও মেতেছেন সাকিব বন্দনায়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে ঝরছে সাকিবকে নিয়ে প্রশংসার বৃষ্টি।

ভারতের সাবেক ক্রিকেটার আকাশ চোপড়ার কাছে বিশ্বকাপের ‘রাজা’ এখন বাংলাদেশের সাকিব। তার টুইটটা এমন, ‘২০১৯ বিশ্বকাপ দখল করে নিয়েছেন সাকিব আল হাসান। অনন্য কীর্তি।’

ভারতীয় ক্রিকেট বিশ্লেষক আয়াজ মেননের কাছে সাকিব হলেন ‘হিরো নাম্বার ওয়ান’। আফগানিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের ৬২ রানের জয়ের ম্যাচটি তিনি দেখেছেন। সাকিবের পারফরম্যান্সে মুগ্ধ এই বিশ্লেষক মোহাম্মদ নবীর আউটটি নিয়ে কথা বলেছেন। চমৎকার ডেলিভারিতে নবীর স্টাম্প ভাঙার দৃশ্যটি দেখার পরপরই আয়াজের টুইট, ‘বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত হিরো নাম্বার ওয়ান সাকিব আল হাসান। কী চমৎকারভাবে ছেঁটে ফেললেন মোহাম্মদ নবীকে, যাতে আফগানিস্তান খেলো বড় ধাক্কা।’

আফগান ম্যাচে হাফসেঞ্চরি করে আবারও বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হয়েছেন সাকিব (৪৭৬)। বোলিংয়ে নিজের উইকেট সংখ্যা নিয়ে গেছেন ১০-এ। যাতে নতুন এক রেকর্ডও গড়েছেন বাঁহাতি অলরাউন্ডার। সেই রেকর্ড তুলে ধরে গৌরব সুন্দর নামের এক ভারতীয়র টুইট, ‘সাকিব আল হাসান- কী চমৎকার খেলোয়াড়। বিশ্বকাপ ইতিহাসে প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে ৪০০ প্লাস রান ও ১০ উইকেট নিয়েছেন। আর এই সবকিছু করেছেন মাত্র ৬ ম্যাচে। কিংবদন্তি পারফরম্যান্স…।’

শিতিজ রাজাও মুগ্ধ বাংলাদেশি তারকার পারফরম্যান্সে, ‘তিনি যেমন ব্যাট হাতে ম্যাচ জেতাতে পারেন, তেমনি বল হাতে। তিনি সত্যিকারের রতœ। সাকিব আল হাসানকে প্রণাম।’

বিকাশ নামের একজন তো কয়েক কাঠি এগিয়ে। তার মতে, এখনই টুর্নামেন্টসেরার পুরস্কার পাওয়া উচিত সাকিবের। তার টুইট, ‘এখনই এবং এই মুহূর্তে সাকিব আল হাসানকে প্লেয়ার অব দ্য টুর্নামেন্ট দেওয়া হোক। কী খেলোয়াড়!!!’

সাকিবের প্রশংসার তালিকায় মেয়ে ভক্তও আছেন। শ্বেতা হরিণী নামের একজন লিখেছেন, ‘দুর্দান্তভাবে জ্বলে উঠেছেন সাকিব আল হাসান। প্রথমে ব্যাট হাতে, আর এখন বোলিংয়ে। তাকে এবারের বিশ্বকাপের সেরা অলরাউন্ডার বললে এতটুকুও বাড়িয়ে বলা হবে না।’

ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্করের ছেলে ও পররাষ্ট্রনীতি বিশেষজ্ঞ ধ্র“ব জয়শঙ্কর সাকিবের প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরেছেন এভাবে, ‘তর্কহীনভাবে বলা যায়, এবারের বিশ্বকাপে সাকিবের মতো নির্ভরশীল খেলোয়াড় অন্য কোনও দলে নেই। তার কাছাকাছি কি কেউ আসতে পারবে?’

শুধু টুইট করে নয়, ফটোশপেও সাকিবকে উপস্থাপন করা হয়েছে অন্যভাবে। বরুণ কুমার সিং যেমন ‘লেট মি হ্যান্ডল ইট’ লেখা সাকিবের ছবি পোস্ট করে ক্যাপশন করেছেন, ‘যখনই বাংলাদেশ দল কঠিন পরিস্থিতিতে পড়ে, সাকিব আল হাসান আবির্ভূত হন এভাবে।’

 

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.