বুড়িগঙ্গায় নিখোঁজ এক প্রকৌশলীর লাশ উদ্ধার

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক

নারায়ণগঞ্জে বুড়িগঙ্গায় পাঁচদিন আগে নিখোঁজ বাংলা ক্যাটের দুই প্রকৌশলীর মধ্যে একজনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। মৃত মাহফুজুর রহমান জিসান (৩২) সাভারের আশুলিয়ার ডেন্ডাবর এলাকার মোকলেসুর রহমানের ছেলে এবং ‘বাংলা ক্যাট’ কোম্পানির প্রকৌশলী (মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার) ছিলেন। ফতুল্লা মডেল থানার ওসি আসলাম হোসেন জানান, মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান থেকে শুক্রবার বেলা সোয়া ১২টার দিকে জিসানের লাশ উদ্ধার করা হয়।

গত শনিবার (৫ জানুয়ারি) নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার বক্তাবলীর রাজাপুর এলাকার বড়িগঙ্গা নদীতে জিসান ও তার সহকর্মী লিখন সরকার নিখোঁজ হন। এ ঘটনায় ৭ জানুয়ারি জিসানের স্ত্রী রাফিয়া সুলতানা আশুলিয়া থানায় জিডি করেন। লিখনের বাড়ি আশুলিয়ার নরসিংপুরে।

জিসানের বড় ভাই শোয়েব আহমেদ সাংবাদিকদের বলেন, গত শনিবার বিকালে আশুলিয়া থেকে তার ছোট ভাই জিসান ও তার সহকর্মী লিখন সরকার নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার বক্তাবলীতে রাজাপুর এলাকায় ‘বুড়িগঙ্গা এন্টারপ্রাইজ’ নামে একটি প্রতিষ্ঠানে ভেকু মেরামত করতে যান।

সেখানে কাজ শেষে রাত সাড়ে ১২টার দিকে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছেন বলে তার স্ত্রীকে মোবাইল ফোনে জানান। কিন্তু ভোর পর্যন্ত জিসান বাড়ি না আসায় তার ছোট ভাইয়ের স্ত্রী মোবাইলে ফোন করে বন্ধ পান। পরে তারা বিষয়টি বাংলা ক্যাট কোম্পানিকে জানান।

শোয়েব বলেন, বুড়িগঙ্গা এন্টারপ্রাইজের’ মালিক সজীব মিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ করলে তিনি তাদের জানান যে- শনিবার রাত সাতে ৩টার দিকে তার কর্মচারী পায়েল ইঞ্জিন চালিত নৌকায় করে জিসান ও লিখনকে নিয়ে বুড়িগঙ্গা নদী পার হচ্ছিলেন।

পথে একটি জাহাজ কাছাকাছি নৌকার কাছাকাছি এসে পড়লে ট্রলারের চালক পায়েলসহ জিসান ও লিখন নদীতে ঝাঁপ দেন। ভোরের দিকে পায়েল সাঁতরে তীরে উঠতে পারলেও জিসান ও লিখন নিখোঁজ হন।

 

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.