বিয়েতে রাজি না হওয়ায় কলেজছাত্রীকে গলাকেটে হত্যা

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক
ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলায় এক কলেজ ছাত্রীকে তার কথিত প্রেমিক গলাকেটে হত্যা করেছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। বিয়ের প্রস্তারে রাজি না হওয়ায় প্রতিশোধ নিতে এ কাণ্ড ঘটিয়েছেন বলে সোহাগ পুলিশের কাছে স্বীকার করেছেন।
গতকাল শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে ঝালকাঠির ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার মো. জাহাঙ্গীর আলম সাংবাদিকদের জানান, উপজেলার বারইকরণ গ্রামের কাপুড়িয়া বাড়ি এলাকায় বৃহস্পতিবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। নিহত বেনজীর জাহান মুক্তার বাড়ি ওই এলাকায়। তিনি ঝালকাঠি সরকারি মহিলা কলেজের স্নাতক দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী ছিলেন। আটক সোহাগ পটুয়াখালী জেলার কলাপাড়া উপজেলার নিশানবাড়িয়া গ্রামের আবদুস ছোবাহান মীরার ছেলে। সে ঢাকার একটি কারখানায় চাকরি করে।
সোহাগের দেওয়া তথ্যের বরাতে ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার সাংবাদিকদের বলেন, মোবাইল ফোনে পরিচয়ের মাধ্যমে মুক্তার সঙ্গে সোহাগের সম্পর্ক তৈরি হয়। একই সময় মুক্তার সঙ্গে আরও কয়েকজন তরুণের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। বিষয়টি টের পেয়ে সোহাগ ওই মেয়েটিকে বিয়ের প্রস্তাব দেয়। কিন্তু মুক্তা তাতে রাজি হয়নি। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী কলেজ থেকে বাড়ি ফেরার পথে সোহাগ ধারালো ছুরি দিয়ে মুক্তাকে গলাকেটে হত্যা করেন। এরপর রাতেই সোহাগকে পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার চাকামইয়া গ্রাম থেকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে এ পুলিশ কর্মকর্তা জানান।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.