বিড়ি ও সিগারেট শিল্পের উপর শুল্ক ও ট্যাক্স বৈষম্যের প্রতিক্রিয়ায় মানববন্ধন

 

 

 

খবর বিজ্ঞপ্তি

২০১৯-২০২০ অর্থ বছরের প্রস্তাবিত বাজেটে বিড়ির ওপর অযৌক্তিকভাবে প্রতিযোগী কম দামি সিগারেটের চেয়ে ৪ গুন বেশি শুল্ক নির্ধারণের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১১টায় বাগেরহাটের মোল্লাহাটের ঢাকা-খুলনা হাইওয়ের জয়ঢিহি ষ্ট্যান্ডে বাগেরহাট জেলা বিড়ি শ্রমিক ফেডারেশন মানবন্দন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করে।

উক্ত মানববন্দনে বক্তারা বলেন, ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরের প্রস্তাবিত বাজেটে বিড়ির ওপর অযৌক্তিকভাবে প্রতিযোগী কম দামি সিগারেটের চেয়ে ৪ গুন বেশি শুল্ক নির্ধারনের ফলে আবারো বিড়ি ফ্যাক্টরীগুলো বন্ধ হয়ে যাবে। প্রতিবছরের ন্যায় ২০১৯-২০২০ অর্থবছরে প্রস্তাবিত বাজেটে বৈষম্যমূলক নীতির প্রচেষ্টা এখনো বিদ্যমান রয়েছে।

বক্তারা জানান যে, ২০১৯-২০২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে বিড়িতে ২৪.২০ শতাংশ শুল্ক বৃদ্ধি করা হয়েছে, অন্যদিকে কম দামি সিগারেটে ৫.৭১ শতাংশ শুল্ক বৃদ্ধি করা হয়েছে। বিড়ির সম্পূরক শুল্ক ৩০% থেকে ৩৫% করা হয়েছে  অর্থাৎ ৫% বৃদ্ধি করা হয়েছে, অন্যদিকে বহুজাতিক কোম্পানীর কম দামি সিগারেট ও বেশি দামি সিগারেটের সম্পূরক শুল্ক বৃদ্ধি করা হয় নাই।

বক্তারা কুটির শিল্প বিড়িকে টিকিয়ে ও লক্ষ লক্ষ শ্রমিকদের কর্মসংস্থান রক্ষার স্বার্থে জাতির বিবেক হিসেবে সাংবাদিকদের মাধ্যমে সরকার ও দেশবাসীর কাছে তুলে ধরার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ জানান।

মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন বাগেরহাট জেলা বিড়ি শ্রমিক ফেডারেশন এর ভাপতি মোঃ তৌহিদুল ইসলাম। মানববন্ধনে আরো বক্তৃতা করেন বিড়ি শ্রমিক নেতা আব্দুল আওয়াল মিনা, শুশংকর, মোঃ মোকলেছুর রহমান, তৌহিদ হোসেন, ইউছুপ মিয়াসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.