বিপিএল: ইভান্সের ব্যাটে আসরের প্রথম সেঞ্চুরি

ক্রীড়া ডেস্ক
কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের বিপক্ষে প্রথম দেখায় গোল্ডেন ডাকের তেতো স্বাদ পেয়েছিলেন লরি ইভান্স। এবার শহিদ আফ্রিদি, ওয়াহাব রিয়াজ, থিসারা পেরেরাদের ওপর চড়াও হয়ে রাজশাহী কিংসের ওপেনার তুলে নিলেন ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি। ইংলিশ ডানহাতি ব্যাটসম্যানের হাত ধরে এলো বিপিএলের এবারের আসরের প্রথম শতক।
মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সোমবার কুমিল্লার বিপক্ষে দলকে ৩ উইকেটে ১৭৬ রানের চ্যালেঞ্জিং সংগ্রহ এনে দেওয়ার পথে অপরাজিত ১০৪ রানের দারুণ ইনিংস খেলেন ইভান্স। তার সৌজন্যে ষষ্ঠ আসরে ২৩তম ম্যাচে এসে প্রথম সেঞ্চুরি দেখল বিপিএল।
ঢাকা ডায়নামাইটসের বিপক্ষে নিজের প্রথম ম্যাচে ইভান্স ফিরেছিলেন ১০ রান করে। পরের চার ইনিংসে যেতে পারেননি দুই অঙ্কে। চার ইনিংস মিলিয়ে করেছিলেন ৩ রান, দুইবার আউট হয়েছিলেন শূন্য রানে।
গত ১১ জানুয়ারি মিরপুরেই আফ্রিদির বলে শূন্য রানে ফিরেছিলেন ইভান্স। এবার লেগ স্পিনারকে খেললেন আস্থার সঙ্গে। পেসারদের বিপক্ষে ছিলেন সাবলীল। স্বদেশের লিয়াম ডসন ছাড়া আর কেউ ভাবাতে পারেনি ইংলিশ ব্যাটসম্যানকে।
দ্রুত ৩ উইকেট হারানো রাজশাহীর শুরুটা ছিলো মন্থর। ইভান্সও ছিলেন সাবধানী। ৪০ বলে আসে তার ফিফটি। সে সময় হাঁকান ৫টি চার ও দুটি ছক্কা।
পঞ্চাশ ছোঁয়ার পর ডানা মেলেন ইভান্স। বোলারদের ওপর চড়াও হয়ে ৬১ বলে পৌঁছান তিন অঙ্কে। তার দ্বিতীয় পঞ্চাশ আসে ২১ বলে। শেষ পর্যন্ত ৬২ বলে ৬ ছক্কা ও ৯ চারে অপরাজিত থাকেন ১০৪ রানে।
বিপিএলে এটি ত্রয়োদশ সেঞ্চুরি। নবম ক্রিকেটার হিসেবে এই টুর্নামেন্টে সেঞ্চুরি করলেন ইংল্যান্ডের গত টি-টোয়েন্টি ব্লাস্টে সর্বোচ্চ রান করে নজর কাড়া ইভান্স। সর্বোচ্চ পাঁচটি আছে ক্রিস গেইলের। একাধিক সেঞ্চুরি নেই আর কারও।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.