February 26, 2024
আন্তর্জাতিক

বাইডেন প্রশাসনে হিজাবি মুসলিম নারী

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন প্রশাসনের উপদেষ্টা হিসেবে এক হিজাবি মুসলিম নারী নিয়োগ পেয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন ব্যক্তিদের আন্তর্জাতিক অধিকার বিষয়ক উপদেষ্টা হিসেবে লেবানিজ বংশোদ্ভূত আমেরিকান সারাহ মেনকারাকে নিয়োগ দেওয়া হয়।

বৃহস্পতিবার (২৮ অক্টোবর) এক বিবৃতিতে তাঁর নিয়োগের ঘোষণা দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

এক টুইট বার্তায় বাইডেন প্রশাসনের উপদেষ্টা নিযুক্ত হওয়ার কথা জানিয়ে সারাহ লেখেন, আমি সবাইকে এ খবর জানিয়ে অত্যন্ত আনন্দবোধ করছি যে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হারিসের প্রশাসনে বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন ব্যক্তিদের আন্তর্জাতিক অধিকার বিষয়ে আমি বিশেষ উপদেষ্টা হিসেবে যোগ দিয়েছি।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন হোয়াইট হাউজের এক বিবৃতিতে জানান, তিনি প্রতিবন্ধী সারাহ মেনকারাকে বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন ব্যক্তিদের আন্তর্জাতিক অধিকারের বিষয়ে বিশেষ উপদেষ্টা হিসেবে নিয়োগ দিয়েছেন। এ পদক্ষেপ বিশ্বজুড়ে বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন ব্যক্তিদের মানবাধিকারের সুরক্ষায় যুক্তরাষ্ট্রের কূটনীতি ও বৈদেশিক সহায়তা নিশ্চিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলে বিবৃতিতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জানান।

জো বাইডেন মনে করেন বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন ব্যক্তিদের প্রতি যে কোনো ধরনের বৈষম্য অর্থনৈতিক উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করে, গণতন্ত্রকে সীমিত করে এবং সমাজকে দুর্বল করে। ৩০ বছর বয়সী সারাহর নেতৃত্বে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বিশ্বব্যাপী বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন ব্যক্তিদের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলে বিবৃতিতে বলা হয়।

লেবানিজ বংশোদ্ভূত সারাহ আমেরিকান হিজাবি তরুণী। মূলত সারাহ নিজের দৃষ্টিশক্তি হারিয়ে তিনি দৃষ্টিপ্রতিবন্ধী শিশুদের সাহায্যে এগিয়ে আসতে উৎসাহী হন। এর আগে তিনি লেবাননে গিয়ে বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন শিশুদের পর্যাপ্ত শিক্ষা থেকে বঞ্চিত হতে দেখেন। শিক্ষাক্ষেত্রে তাদের সহায়তার জন্য একটি সমাজসেবামূলক সংগঠন প্রতিষ্ঠা করেন।

সারাহ যুক্তরাষ্ট্রের ওয়েলেসলি কলেজ ও হার্ভার্ড কেনেডি স্কুল থেকে স্নাতক সম্পন্ন করেন। ২০১৭ সালে আমেরিকার বিখ্যাত ম্যাগাজিন ফোর্বস-এ প্রকাশিত ৩০ বছরের কম বয়সী ছয় শ তরুণের তালিকায় স্থান করে নেন। তারা খেলাধুলা, উদ্যোক্তা, চিকিৎসা, মিডিয়াসহ পেশাগত জীবনের বিভিন্ন ক্ষেত্রে দূর্দান্ত সাফল্য অর্জন করেছেন।

হোয়াইট হাউজের বিবৃতিতে সারাহকে ‘প্রতিবন্ধীসেবা, অন্তর্ভূক্তিমূলক কাজ, প্রকৃত নেতৃত্বগুণ ও সমাজসেবার উদ্যোক্তার ক্ষেত্রে বিশেষ পারদর্শী হিসেবে’ উল্লেখ করা হয়। এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী থাকাকালে প্রতিবন্ধী তরুণদের ক্ষমতায়ন ও বিশ্বব্যাপী তাদের অন্তর্ভূক্তিমূলক কাজ তরান্বিত করতে তার প্রতিষ্ঠিত সংগঠনের প্রশংসা করা হয়।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *