April 23, 2024
আঞ্চলিকলেটেস্ট

বাংলাদেশের সবচেয়ে দ্রুত বর্ধমান ফার্নিচার কোম্পানি ইশো এখন খুলনায়

খুলনার গ্রাহকরা এখন ইশো’র ওয়েবসাইট থেকেই কিনতে পারবেন ভিন্ন ধরণের ৬০০ প্রোডাক্ট

‌দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক
একটি সফল কোয়ার্টার এবং চট্টগ্রাম ও সিলেটে সাম্প্রতিক উদ্বোধনের পর অভিনব ও উদ্ভাবনী ফার্নিচার ব্র্যান্ড ইশো গতকাল বুধবার খুলনায় যাত্রা শুরুর ঘোষণা দিয়েছে। এখন অনলাইন এবং অফলাইনে ইশো থেকে খুলনার গ্রাহকরা বিভিন্ন আধুনিক এবং নান্দনিক ডিজাইনের ফার্নিচার কিনতে পারবেন।
খুলনার গ্রাহকরা আবাসিক এবং অফিস ফার্নিচারের ক্ষেত্রে এখন বেছে নিতে পারবেন ইশো’র ১৪টি ক্যাটেগরির প্রায় ৬০০ প্রোডাক্টের মধ্য থেকে তাদের পছন্দের সেরাটি। বাজারে যোগানের সাথে আধুনিক প্রজন্মের চাহিদার মেলবন্ধন তৈরি করাই কোম্পানিটির বিভিন্ন ডিজাইনের মূল দার্শনিক ভিত্তি। বিশ্বের বিভিন্ন স্থান ও ডিজাইনের অনুপ্রেরণা নিয়ে ইশো’র তৈরি বিভিন্ন কালেকশন গ্রাহকের মন জয় করে পরিণত হয়েছে বিপণনের অন্যতম খাতে।
লিভিং রুম, ডাইনিং রুম, বেডরুম, স্টাডি ও অফিসসহ সব ধরনের রুম ও রুচির জন্য ফার্নিচার সরবরাহ করে খুলনায় নতুন এবং পুরনো গ্রাহকদের মন জয় করে নেওয়াই ইশো’র প্রত্যাশা।
ইশো’র সাফল্যের কারণ মূলত অভিনব ডিজাইন এবং কনসেপ্ট- যা মানুষের লাইফস্টাইল ও স্পেস ব্যবহারের সমন্বয় বুঝে তৈরি করা হয়। একদমই আনকোরা, নতুন স্মার্ট সিরিজ ও ব্লুটুথ অটোমান থেকে সহ-জীবনযাপনের সমাধান হিসেবে ডর্ম্ববক্সের মত অভিনব নতুন কনসেপ্টও আছে ইশো’র প্রোডাক্ট পোর্টফোলিওতে। এছাড়াও, সম্প্রতি ইশো একটি ওয়ান স্টপ ডিজাইন সলিউশনের জন্য চালু করেছে ডিজাইন স্টুডিও যা গ্রাহকদের ইন্টেরিয়র ডিজাইনের বিভিন্ন সলিউশন দিয়ে থাকে। প্ল্যাটফর্মটির লঞ্চ গ্রাহকদেরকে বিশ্বব্যাপী সমাদৃত অনন্য ফার্নিচার ডিজাইন দেওয়ার পাশাপাশি তাদের প্রয়োজনীয় ইন্টেরিয়র ডিজাইন সলিউশন দেওয়া নিয়ে ইশো’র প্রতিজ্ঞাকেই আরো সুসংহত করেছে।
ক্রমবর্ধমান চাহিদার সাথে সামঞ্জস্য রাখতে ইশো শহরের মাঝেই একটি ওয়্যারহাউস খোলার পরিকল্পনা করছে এবং একইসাথে গ্রাহকের সম্পূর্ণ সন্তুষ্টি নিশ্চিত করার জন্য সব রকম সার্ভিসই একদম শুরু থেকেই চালু করবে। করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে প্রতিরক্ষার জন্য খুলনার সকল সার্ভিস এক্সিকিউটিভের কাছে আছে পিপিই কিট, স্যানিটাইজার, মাস্কসহ প্রয়োজনীয় প্রতিরক্ষা সামগ্রী এবং একইসাথে গ্রাহককে নিশ্চিন্তে রাখতে স্টোরে প্রয়োজনীয় দূরত্বের প্রটোকলের প্রয়োগ নিশ্চিত করা হয়েছে।
ইশো’র প্রতিষ্ঠাতা ও ম্যানেজিং ডিরেক্টর রায়ানা হোসেইন বলেন, “খুলনায় ইশো’র লঞ্চ নিয়ে আমরা খুবই আনন্দিত ও উচ্ছ্বসিত। ঢাকা এবং চট্টগ্রামে গ্রাহকদের কাছ থেকে বিপুল সাড়া পেয়েই আমার আমাদের পরিধিকে আরো বিস্তৃত করার তাগিদ অনুভব করেছি। গত বছরজুড়ে এই শহর থেকে আগ্রহী অনেকেই আমাদের সাথে যোগাযোগ করেছেন। খুলনার মানুষের কাছে আমাদের অভিনব সব ডিজাইন পৌঁছে দিতে পেরে আমরা অত্যন্ত আনন্দিত।”

দক্ষিণাঞ্চল প্রতিদিন/ এম জে এফ

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *