বর্ষার দিনের নাশতা

এখন বর্ষাকাল। এ সময়ে বিকালের নাশতায় যদি আলুর চপ কিংবা পাপড়ি চাটের মতো মচমচে নাশতা পরিবেশন করা যায়, তাহলে বর্ষা উদযাপনটাও বেশ জমবে। তেমনি কিছু খাবার-

চিকেন বল

যা লাগবে : মুরগির মাংস (হাড় ছাড়া) ২ কাপ, পেঁয়াজ বাটা ২ টেবিল চামচ, আদা-রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ, মরিচ কুচি ৪-৫টি, গোলমরিচ গুঁড়া ১ টেবিল চামচ, জিরা গুঁড়া ১ চা চামচ, লেবুর রস ২ চা চামচ, কর্নফ্লাওয়ার ১ টেবিল চামচ, ডিম ১টি, আলু মাঝারি ২টি, পাউরুটি স্লাইস ২ টুকরা, ব্রেডক্রাম আধা কাপ, তেল ভাজার জন্য, লবণ স্বাদমতো।

যেভাবে করবেন : আলু সিদ্ধ করে খোসা ছাড়িয়ে ভালো করে চটকে নিন। ব্রেডক্রাম আলাদা করে রাখুন। একটি পাত্রে মাংসের কিমা ও সব উপকরণ একসঙ্গে মিশিয়ে ভালো করে মেখে হাত দিয়ে ছোট ছোট বলের মতো গোল করে ফেটানো ডিমে চুবিয়ে ব্রেডক্রামে গড়িয়ে গরম ডুবো তেলে হালকা বাদামি করে ভেজে তেল ঝরিয়ে সস বা চাটনির সঙ্গে গরম গরম পরিবেশন করুন।

ডিম চপ

যা লাগবে : সিদ্ধ ডিম ৪টি, সিদ্ধ আলু ৩ কাপ, পেঁয়াজ কুচি বেরেস্তা হাফ কাপ, আদা কুচি বেরেস্তা ১ চা চামচ, কাঁচামরিচ কুচি ৪-৫টি, গোলমরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ, টালা জিরা গুঁড়া ১ চা চামচ, টালা শুকনামরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ, ডিম ২টি, ব্রেডক্রাম ১ কাপ, তেল ভাজার জন্য, লবণ স্বাদমতো।

যেভাবে করবেন : একটি বাটিতে সিদ্ধ আলু, পেঁয়াজ, আদা, শুকনামরিচ বেরেস্তা ও লবণ মাখিয়ে নিন। এরপর গোলমরিচ ও জিরা গুঁড়া, কাঁচামরিচ কুচি মাখিয়ে আলুর মিশ্রণটি ৮ ভাগ করে রাখুন। সিদ্ধ ডিমগুলো লম্বালম্বিভাবে দুই ভাগ করে আলুর মধ্যে অর্ধেকটা করে ডিম ভরে ডিমের

আকারের মতো করে ফেটানো ডিমে ডুবিয়ে ব্রেডক্রামে গড়িয়ে গরম ডুবো তেলে হালকা বাদামি করে ভেজে তেল ঝরিয়ে

সস বা চাটনির সঙ্গে গরম গরম পরিবেশন করুন।

চিকেন স্টাফড ব্রেড চপ

যা লাগবে : চিকেন স্লাইস হাফ কাপ, ব্রেড ৭-৮ পিস, সবজি হাফ কাপ, হলুদ মরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ, আদা রসুন বাটা ১ চা চামচ, চিজ গ্রেট করা হাফ কাপ, গোলমরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ, ডিম ২টি, ব্রেডক্রাম ১ কাপ, বাটার ১ টেবিল চামচ, তেল ভাজার জন্য, লবণ স্বাদমতো।

যেভাবে করবেন : ব্রেডগুলো সমান গোল করে কেটে বাটার মাখিয়ে রাখুন। একটি পাত্রে সামান্য লবণ, আদা, রসুন বাটা ও হলুদ-মরিচ দিয়ে চিকেন ও সবজি সিদ্ধ করে নিন। ঠান্ডা করে চিজ মিশিয়ে রাখুন। হাতের তালুতে এক পিস ব্রেড নিয়ে চিকেনের পুর দিয়ে অন্য আর একটি ব্রেড পিস উপরে দিন। দুটো ব্রেড হাত দিয়ে চেপে দিন। এভাবে সব বানিয়ে নিন। এবার ব্রেডচপগুলো ফেটানো ডিমে চুবিয়ে ব্রেডক্রামে গড়িয়ে গরম ডুবো তেলে হালকা বাদামি করে ভেজে তেল ঝরিয়ে সস বা চাটনির সঙ্গে গরম গরম পরিবেশন করুন।

পাপড়ি চাট

যা লাগবে : ময়দা বা আটা ২ কাপ, ডাবলি সিদ্ধ ১ কাপ, আলু সিদ্ধ কিউব ১ কাপ, পেঁয়াজ মিহি কুচি ২ টেবিল চামচ, কাঁচামরিচ কুচি ৩-৪টি, কালিজিরা আধা চা চামচ, ধনিয়াপাতা কুচি ১ টেবিল চামচ, চাট মসলা ১ চা চামচ, টকদই ১ কাপ, টালা শুকনামরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ, তেঁতুলের ক্বাথ ১ কাপ, চিনি/গুড় ১ টেবিল চামচ, তেল ভাজার জন্য, লবণ স্বাদমতো।

যেভাবে করবেন : একটি পাত্রে ময়দা, লবণ, কালিজিরা ও ১ টেবিল চামচ তেল ভালো করে মেখে প্রয়োজনমতো পানি দিয়ে হালকা নরম শক্ত ডো তৈরি করে একটি ভেজা কাপড় দিয়ে ১০-১৫ মিনিট মুড়িয়ে ঢেকে রাখুন। এবার সামান্য ডো হাতে নিয়ে ছোট ছোট বল বানিয়ে পিঁড়িতে সামান্য তেল মেখে রুটি বেলে নিন। কড়াইতে তেল গরম করে ডুবো তেলে রুটিগুলো হালকা বাদামি করে ভেজে তেল ঝরিয়ে নিন। টকদইয়ের সঙ্গে টালা মরিচ গুঁড়া, লবণ, চিনি মিশিয়ে ভালো করে ফেটে নিন। তেঁতুলের ক্বাথের সঙ্গে সামান্য দই, চিনি ও লবণ মিশিয়ে ব্লেন্ড করে নিন। পরিবেশন পাত্রে পাপড়িগুলো নিয়ে প্রথমে আলু কিউব, ডাবলি, দইয়ের মিশ্রণ, তেঁতুলের ক্বাথ, পেঁয়াজ কুচি, ধনিয়াপাতা কুচি, কাঁচামরিচ কুচি দিয়ে সাজিয়ে চাট মসলা ছিটিয়ে টকদইয়ের চাটনির সঙ্গে পরিবেশন করুন।

কিমার পুরে মচমচে আলুর চপ

যা লাগবে : মুরগির মাংসের কিমা ১ কাপ, আলু ৫০০ গ্রাম, পেঁয়াজ কুচি আধা কাপ, আদা-রসুন বাটা ১ চা চামচ, পেঁয়াজ বেরেস্তা আধা কাপ, গোলমরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ, গরম মসলা গুঁড়া ১ চা চামচ, কাঁচামরিচ কুচি ৩-৪টি, পুদিনাপাতা কুচি ২ টেবিল চামচ, সয়াসস ১ চা চামচ, ডিম ২টি, ব্রেডক্রাম দেড় কাপ, বিট লবণ সামান্য, লবণ স্বাদমতো, তেল ভাজার জন্য।

যেভাবে করবেন : আলু সিদ্ধ করে খোসা ছাড়িয়ে ভালো করে চটকে নিয়ে তাতে পেঁয়াজ বেরেস্তা, গোলমরিচের গুঁড়া, লবণ, বিট লবণ দিয়ে মাখিয়ে ৮-১০ ভাগ করে রাখুন। মাংসের কিমায় সস, গরম মসলার গুঁড়া, আদা-রসুন বাটা ও সামান্য লবণ দিয়ে অল্প পানিতে সিদ্ধ করে নিন। ফ্রাইপ্যানে সামান্য তেল গরম করে পেঁয়াজ কুচি, কাঁচামরিচ কুচি ও পুদিনাপাতা দিয়ে মাংসের কিমা ভেজে নিন। আলুর মধ্যে কিমার পুর ভরে গোল গোল বল বা পছন্দমতো চপের আকার করে ফেটানো ডিমে ডুবিয়ে ব্রেডক্রামে গড়িয়ে গরম ডুবো তেলে চপগুলো হালকা বাদামি করে ভেজে তেল ঝরিয়ে সস বা চাটনির সঙ্গে গরম গরম পরিবেশন করুন।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *