বঙ্গোপসাগরে সার বোঝাই লাইটার ডুবি : ১৪ নাবিককে উদ্ধার

মোংলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি

মোংলা বন্দরের অদূরে সুন্দরবনের দুবলা মেহের আলী সংলগ্ন বঙ্গোপসাগরে ডুবে গেছে ইউরিয়া সার বোঝাই এমভি পারভীন-২ নামের একটি লাইটার জাহাজ। গতকাল শুক্রবার ভোররাতে ডুবো চরে আটকে এ দূর্ঘটনা ঘটে বলে জানা গেছে। লাইটার জাহাজটিতে থাকা ১৪ নাবিককে ভাসমান অবস্থায় সমুদ্র মোহনা থেকে উদ্ধার করেছে দুবলা কোস্টগার্ডের টহল দল।

উদ্ধারকৃত নাকিরা হচ্ছে- জামাল হোসেন, উজ্জল হোসেন, আরাফাত হোসেন, সালমান মোল্লা, শাহাদাৎ হোসেন, হারুন মোল্লা, জাহাঙ্গীর আলম, রবিন শেখ, মাকিবুল ইসলাম, রফিকুল ইসলাম, আরিফ হোসেন, হাসান শেখ, মানিক শেখ ও ইমাম হোসেন। এদের বাড়ি নড়াইল, গোপালগঞ্জ, কিশোরগঞ্জ, মাদারীপুর, চট্টগ্রাম ও খুলনা জেলায় বলে জানায় কোস্টগার্ড। বিকালে এ রিপোট লেখা পর্যন্ত ডুবে যাওয়া লাইটারের মালিক পক্ষ দুর্ঘটনাস্থলের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়। কোস্টগার্ডের ক্যাম্পে থাকা উদ্ধার নাবিকদের মালিক পক্ষের কাছে সোপর্দ করা হবে।

কোস্টগার্ড ও সমুদ্রগামী জেলেরা জানায়, সমুদ্রে অবস্থানরত বিদেশী বানিজ্যিক জাহাজ থেকে প্রায় ৯শ’ মেট্রিক টন ইউরিয়া সার বোঝাই করে রাতে এমভি পারভীন-২ নামের লাইটারটি মোংলা বন্দর অভিমুখে আসছিল। মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার মাস্টার কমান্ডার ফকর উদ্দিন জানান, বন্দর চ্যানেলের অদূরে ফেয়ারওয়ে বয়া এলাকায় অবস্থানরত লাইব্রেরিয়ান পতাকাবাহী জাহাজ ‘এমভি এন্টিগোনি’ থেকে সার নিয়ে ‘নিউ পারভিন-২’ নামের লাইটার জাহাজটি ভোররাতে মোংলা বন্দরের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়। এ সময় ঘন কুয়াশার কারনে লাইটারটি ডুবো চরে আটকে পড়ে এবং ঘটনাস্থালে একদিকে কাত হয়ে ডুবে যায়। তবে বন্দর চ্যানেল পুরোপুরি নিরাপদ রয়েছে। বন্দরের হিরনপয়েন্টে অবস্থিত হারবার বিভাগের একটি প্রতিনিধি দল ডুবন্ত লাইটারটির বর্তমান অবস্থা এবং ঘটনাস্থলের সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষনে রয়েছে বলেও জানান তিনি।

কোস্টগার্ড পশ্চিম জোনের (মোংলা) অপারেশন কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট ইমতিয়াজ আলম জানান, এ দুর্ঘটনার পরপরই জাহাজের নাবিকদের নিরাপদে উদ্ধার ও প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। তাদের সুন্দরবনে কোস্টগার্ডের দুবলা ক্যাম্পে রাখা হয়েছে।

 

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.