ফুলতলা ও ডুমুরিয়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় দুই চিকিৎসকসহ চারজনের মৃত্যু

দ: প্রতিবেদক

খুলনার ফুলতলা ও ডুমুরিয়া উপজেলায় পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় চারজনের মৃত্যু হয়েছে। ফুলতলায় যাত্রীবাহী বাস ও প্রাইভেটকারের মুখোমুখি সংঘর্ষে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ২ জন চিকিৎসক (অবঃ) ও চালকের মর্মান্তিক মৃত্যু হয় । গতকাল সোমবার বিকাল পৌনে ৪টায় খুলনা-যশোর মহাসড়কের ফুলতলার রাড়ীপাড়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেছে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সাবেক সহকারী পরিচালক ডাঃ শাহাদাৎ হোসেন (৬৩) ও চিকিৎসক ডাঃ মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন (৬১) প্রাইভেটকার (ঢাকা মেট্রো গ-১৩-৬৮৭০) যোগে যশোরের নওয়াপাড়ায় যাচ্ছিলেন। ফুলতলার রাড়ীপাড়া ঈদগাহ এলাকায় পৌছালে বিপরীত দিক থেকে আসা খুলনাগামী গড়াই পরিবহনের বাস (রাজশাহী মেট্রো-১১-০০৩৮) এর সাথে প্রাইভেটকারের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এ সময় বিকট শব্দে প্রাইভেটকারটি দুমড়ে মুচড়ে রাস্তার উপর ছিটকে পড়ে। খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ারসার্ভিসের কর্মীরা এলাকাবাসীর সহায়তায় বিধ্বস্ত প্রাইভেটকার থেকে ডাঃ শাহাদাৎ হোসেনকে দ্রুত উদ্ধার করে ফুলতলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে ফায়ারসার্ভিস কর্মীরা গ্রান্ডিং মেশিন দিয়ে প্রাইভেট কারের দরজা কেটে ডাঃ মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন ও গাড়ী চালক মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন (৪০) এর লাশ উদ্ধার করে। খবর পেয়ে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডাঃ এটিএম মঞ্জুর মোর্শেদ এবং সাবেক সিভিল সার্জন ডাঃ তরুন কান্তি হালদার ঘটনাস্থলে এসে তাদের সাবেক সহকর্মীদ্বয়ের লাশ দেখে কান্নায় ভেঙে পড়েন।

পুলিশ জানায়, নিহত ডাঃ শাহাদাৎ হোসেন খুলনা নগরীর সোনাডাঙ্গা থানার করিমনগর এলাকার মৃত মাজেদ আলীর পুত্র, ডাঃ মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন খুলনার সাউথ সেন্ট্রাল রোডের মৃত আঃ ওয়াহেদের পুত্র এবং চালক মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন খুলনার মুজগুন্নী এলাকার মাহাবুবুর রহমানের পুত্র। দুর্ঘটনা কবলিত বাসটি ফেলে চালক ও হেলপার পালিয়ে যায়। আজ (মঙ্গলবার) ময়নাতদন্ত করা হবে বলে ওসি মোঃ মনিরুল ইসলাম জানিয়েছেন।

অপরদিকে খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় জাহিদুল ইসলাম (৪০) নামের এক মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছেন। গতকাল সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে যশোর-চুকনগর সড়কের নরনিয়া নামকস্থানে মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে। জাহিদুল ইসলাম যশোরের কেশবপুরের ভরত ভায়না ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কেন্দ্রের সহকারী। পুলিশ সুপার (এসপি) মো. আনিচুর রহমান (জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের দায়িত্বে) বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয়রা জানান, জাহিদুল মোটরসাইকেলযোগে যশোরের কেশবপুর থেকে চুকনগরের দিকে যাচ্ছিলেন। চুকনগরের পাশে নরনিয়ায় পৌঁছলে একটি ট্রাকের সঙ্গে মোটরসাইকেলের সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। তবে অনেকে বলছেন, নিহত জাহিদুল যে দিকে যাচ্ছিলেন ট্রাকটিও একই দিকে যাচ্ছিলো। জাহিদুল ট্রাকের পেছনে এসে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে তাকে ধাক্কা দেয়। এতে তার মৃত্যু হয়।

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.