ফুলতলায় স্বাক্ষর জাল করে জমি দলিলের অভিযোগ

 

দ: প্রতিবেদক

খুলনার ফুলতলায় জমিদাতার স্বাক্ষর জাল করে জমি দলিল রেজিষ্ট্রির অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল শুক্রবার বেলা ১১টায় খুলনা প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এমন অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী ওসমান আলী ও তার পরিবার। জমিটি জালিয়াতি চক্রের কবল থেকে পুনরুদ্ধারের দাবী জানিয়েছেন তারা।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে ওসমান আলী শেখ বলেন, ১৯৭৮ সালের ২৩ অক্টোবর ফুলতলা উপজেলার দামোদর গ্রামের জগন্নাথ দাসের মালিকানাধীন অলকা মৌজার ৬৯৫ দাগের ১২ শতাংশ জমি ক্রয় করি। পরে একই মালিকানাধীন একই দাগ খতিয়ান থেকে একই বছরের ১৮ নভেম্বর আমি ও আমার ভাই ওমর আলী শেখের নামে আরও ২৮ শতাংশ ও আমার মা আমেনা খাতুনের নামে একই সালের ২৫ ডিসেম্বর আরও ১২ শতাংশ জমি ক্রয় করি। আমরা কোবালা দলিলের মাধ্যমে মোট ৫২ শতাংশ জমি নাম জারিসহ যাবতীয় কার্যাদি সম্পাদন করে ভোগ দখল করে আসছি। তবে আমরা অন্যত্র অবস্থান করার সুযোগে উপজেলার দামোদর গ্রামের আব্দুল ওহাব ভুঁইয়ার মেয়ে খান সাইদা সুলতানা আমার এবং আমার ভাই ওমর আলী শেখের স্বাক্ষর ও হাতের আঙ্গুলের ছাপ জাল করে ১৯৮০ সালের ১৩ অক্টোবর পৃথক দুটি দলিলের মাধ্যমে ২২৬৬ নম্বর দলিলে ২০ শতাংশ ও ১৪০৪ নম্বর দলিলে ১৪ শতাংশ মোট ৩৪ শতাংশ জমি জাল দলিল রেজিষ্ট্রি করেন।

উল্লেখ্য, ওই দুটি দলিলে আমরা স্বাক্ষর করি নাই। এমনকি দলিলের সনাক্তকারি হিসেবে দামোদর সাকিনের শওকত শেখের নাম ও স্বাক্ষর উল্লেখ থাকলেও সেটিও জাল করা হয়েছে। এ অবস্থায় জালিয়াতি চক্রের বিরুদ্ধে তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন ও সম্পত্তি উদ্ধারের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে দাবী জানিয়েছেন ভূক্তভোগী ওসমান আলী শেখ ও তার পরিবারের সদস্যরা।

 

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.