ফকিরহাটে পান চুরির হিড়িক !!

ফকিরহাট (বাগেরহাট) প্রতিনিধি
পানের মূল্য বৃদ্ধির সাথে সাথে পান চুরির হিড়িক পড়েছে। পান চাষিরা চোরের উপদ্রব থেকে রক্ষা পেতে রাত জেগে পাহারা দিচ্ছে। জানা গেছে, পানের মুল্য চরম ভাবে বেড়ে যাওয়ার কারনে চাষীরা উপকৃত হলেও ক্রেতারা পড়েছেন মহাবিপাকে। চাষিরা ন্যায্য মূল্য পাওয়ার আশায় সারা বছর অক্রান্ত পরিশ্রম করার পর আজ তারা সঠিক মূল্য পেয়ে খুশি হয়েছেন। চাষিরা বলেছেন, বর্তমান বাজারে ভাল ১কুড়ি পানের মূল্য প্রায় ১৬ হাজার থেকে প্রায় ১১ হাজার টাকা পর্যন্ত বিক্রয় হচ্ছে। কিন্তু রাতের বেলায় একটি চক্র পান চুরি করে চাষিদের সর্বশান্ত করে তুলেছেন। চলতি মাসের মাত্র ১৫দিনে উপজেলার পিলজংগ ইউনিয়নের কয়েকটি গ্রামের পান চাষিদের পানের বরজে ব্যাপক চুরি সংঘঠিত হয়েছে।
সূত্র মতে, টাউন নওয়াপাড়া গ্রামের ভীম সাধুর পানের বরজ হতে ৭ ফাই পান চুরি, একই দিন রাতে শ্যামবাগাত গ্রামের কদম কুমার দাশের পানের বরজ হতে ৬ ফাই পান চুরি, গৌর কুমার দে এর পানের বরজ হতে ৫ ফাই পান চুরি, পিলজংগ গ্রামের রওশান আলীর পানের বরজ হতে ৫৫ ফিলু পান চুরি, অসিম দাশের পানের বরজ হতে ৩৩ ফিলু পান চুরি, বিশ^জিৎ দাশের পানের বরজ হতে ৫২ ফিলু পান চুরি, অভিলাশ দাশের পানের বরজ হতে ৪৪ ফিলু পান চুরি, মানিক দাশের পানের বরজ হতে ৩২ ফিলু পান চুরি, লিটু সরদারের পানের বরজ হতে পান চুরি, অচিন্ত দাশের পানের বরজ হতে ৫৫ ফিলু পান চুরি, জগন্নাগ দাশের পানের বরজ হতে ৩৩ ফিলু পান চুরি ও টাউন নওয়াপাড়ার ফকির বাড়ীর লিটু ফকিরের পানের বরজ হতে ৪৫ ফিলু পান চুরি হয়েছে। একটি চোর চক্র দীর্ঘকাল ধরে দিনে ও রাতে পানের বরজ হতে একেরপর এক পান চুরি করলেও তাদের বিরুদ্ধে আইনগত কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয় না। যে কারণে পানের বরজের পান চুরি অব্যাহত রয়েছে। আর এতে পান চাষিরা সর্বশান্ত হয়ে পড়েছেন। কেউ কেউ রাত জেগে পাহারা দিয়েও শেষ রক্ষা করতে পারছেন। এছাড়াও বালিয়াডাঙ্গা জয়পুর লখপুর মানসা বাহিরদিয়া মৌভোগ নলধা ঘনশ্যামপুর সহ বিভিন্ন এলাকায় পান চুরি বৃদ্ধি পেয়েছে। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহনের জন্য পুলিশ প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন পান চাষিরা।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published.