July 19, 2024
জাতীয়

প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ ‘বাকের ভাই’য়ের

দক্ষিণাঞ্চল ডেস্ক
নাটকের জগতে সহকর্মী সুবর্ণা মুস্তাফাকে সংসদ সদস্য করে আইনসভায় আনার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন আসাদুজ্জামান নূর। জনপ্রিয় অভিনেতা নূর দেড় যুগ আগে আওয়ামী লীগ থেকে সংসদ সদস্য হওয়ার পর শেখ হাসিনার বিগত সরকারে মন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করলেও সুবর্ণা মুস্তাফা এবারই প্রথম সংসদে গেলেন সংরক্ষিত আসনের সদস্য হয়ে। একাদশ সংসদের প্রথম অধিবেশনে সোমবার রাষ্ট্রপতির ভাষণের উপর ধন্যবাদ প্রস্তাবের আলোচনা করেন সুবর্ণা।
তার দুদিন পর বুধবার আলোচনার জন্য দাঁড়িয়ে আসাদুজ্জামান নূর ৩০ বছর আগে বাংলাদেশ টেলিভিশনে প্রচারিত বিপুল জনপ্রিয় নাটক ‘কোথাও কেউ নেই’ এর প্রসঙ্গ তোলেন, যাতে সুবর্ণাও অভিনয় করেছিলেন।
হুমায়ূন আহমেদের লেখা ও বরকত উল্লাহর পরিচালনায় ওই নাটকের কেন্দ্রীয় চরিত্র ‘বাকের ভাই’র রূপায়ন করেছিলেন সাবেক সংস্কৃতিমন্ত্রী নূর; মুনার চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন সুবর্ণা। ওই নাটকে ‘বাকের ভাই’র ফাঁসি হলে তা মেনে নিতে পারেননি অনেক দর্শক। তখন রাস্তাঘাটে প্রতিবাদ-সমাবেশ হয়েছিল, এমনকি বাকের ভাইয়ের কুলখানিও আয়োজন করেছিল কোনো কোনো দর্শকমহল।
নীলফামারী থেকে চার বারের সংসদ সদস্য নূর বক্তব্যের শুরুতে বলেন, আমি একটু ৩০ বছর পেছনে চলে যেতে চাই। আজ আমি নস্টালজিক। ‘কোথাও কেউ নেই’ নাটকের প্রসঙ্গ ধরে তিনি বলেন, “সেই নাটকে বাকের ভাইয়ের ফাঁসি হয়। সেই মুনা নিঃসঙ্গ নায়িকায় পরিণত হয়। তবে আজকে তিনি আর নিঃসঙ্গ নন। তিনি আজকে এই মহান সংসদে সাড়ে তিনশ’ মাননীয় সংসদ সদস্যের সঙ্গে বসে আছেন। এবং সেই বাকের ভাই চরিত্রে অভিনয় করেছিলাম আমি, আপনার সামনে দাঁড়িয়ে আছি।
এই যে ঘটনাটি ঘটল হুমায়ূন আহমেদ তার নাটকে করতে পারেননি। আজকে বাস্তবে এটা সম্ভব হয়েছে। সেই চরিত্রে যে অভিনয় করেছন- অসাধারণ শিল্পী সুবর্ণা মুস্তাফা আজকে আমাদের সংসদ সদস্য। এবং এই সুযোগটি করে দিয়েছেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী। আমি আমার পক্ষ থেকে,শিল্পী সমাজের পক্ষ থেকে তাকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাতে চাই। নূর বক্তব্য রাখার সময় অধিবেশন কক্ষে সুবর্ণা মুস্তাফাও ছিলেন; তাকে এসময় হাসতে দেখা যাচ্ছিল।

শেয়ার করুন:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *